দীর্ঘ লড়াইয়ের পর, সকলের প্রার্থনাকে বিফল করে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করলেন ‘জিয়ন কাঠি’-খ্যাত নায়িকা ঐন্দ্রিলা শর্মা (Aindrila Sharma)। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, রবিবার (২০ নভেম্বর), দুপুর ১২টা ৫৯ মিনিটে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করলেন অভিনেত্রী।

১ নভেম্বর ব্রেন স্ট্রোক হয় অভিনেত্রীর। প্রথমে অবশ হয়ে গিয়েছিল তাঁর বাম হাত। এরপরেই ক্রমাগত বমি করতে থাকেন অভিনেত্রী। এর পরই তাঁকে হাওড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। করা হয় অপারেশনও। কিন্তু সংক্রমণ বাড়তে থাকে। চিকিৎসকরা জানান, মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হয়েছে ঐন্দ্রিলার। কোমায় চলে যান তিনি। রাখা হয় ভেন্টিলেশনে। মাঝে ক’দিন সুস্থতার দিকে এগোলেও শেষ পর্যন্ত লড়াইটা হেরেই গেলেন ‘ফাইটার’ ঐন্দ্রিলা।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা। স্কুলে পড়া সেই কিশোরী লড়ে গিয়েছিলেন ব্যোন ম্যারো ক্যানসারের সঙ্গে। জয়ীও হয়েছিলেন তিনি। বহরমপুরের ইন্দ্রপ্রস্তের বাসিন্দা ঐন্দ্রিলা কর্কট রোগের কাছে হার মানেননি। ইঞ্জেকশনের যন্ত্রণায় কাতর মেয়েটা লড়ে গিয়েছিল। জয়ীও হয়েছিলেন সেই যুদ্ধে। ক্যানসারকে হার মানিয়ে ফিরে এসেছিলেন স্বাভাবিক জীবনে।

২০২১-এর ফেব্রুয়ারিতে হঠাৎই ছন্দপতন। আচমকা ডান কাঁধে যন্ত্রণা শুরু হয় ঐন্দ্রিলার। অভিনেত্রী ভেবেছিলেন শোয়ার দোষে হয়তো ব্যথা। তারপর জানা যায়, ডান ফুসফুসে ১৯ সেন্টিমিটারের একটি টিউমার রয়েছে। আবারও শুরু হয় কেমো, সেই যন্ত্রণা। ২০২১-এর প্রায় গোটা বছরটাই ক্যানসারের সঙ্গে কঠিন যুদ্ধ চালিয়ে ফের জয়ী হন ঐন্দ্রিলা। কাজেও ফেরেন ধীরে ধীরে। কিন্তু ২০২২-এর ১ নভেম্বর রাতে ফের ছন্দপতন। ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হন তিনি।

হাসপাতালে ভর্তি থাকাকালীন গত বুধবার তাঁর কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয় পর পর দু’বার। মাঝে খবর ছড়িয়ে যায় যে তিনি আর নেই। তখন তাঁর বন্ধু সব্যসাচী জানান, এই খবর মিথ্যে। শুক্রবার তাঁর অবস্থার খানিক উন্নতি হলেও শনিবার ফের অ্যাটাক। ১০ বার কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয় অভিনেত্রীর। এরপরই আর শেষ রক্ষা করা গেল না। রবিবার চলে গেলেন সকলকে কাঁদিয়ে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন