Akshay kumar

ওয়েবডেস্ক: গ্রামের মহিলাদের সুবিধার্থে স্যানিটারি ‘প্যাড ব্যাঙ্ক’ খোলার উদ্যোগের কথা গত মাসেই ঘোষণা করেছিলেন অক্ষয়কুমার। মহারাষ্ট্রের লাতুর, সোলাপুর এবং জলগাঁওয়ের ২০টি গ্রামে তিনি ওই বিশেষ ব্যাঙ্ক চালু করে দিয়েছেন।

এর আগেও মহারাষ্ট্রের যহতমাল জেলার যে গ্রামটিতে কৃষক আত্মহত্যার সংখ্যা সব থেকে বেশি, তার হাল ফেরাতে  কেন্দ্র সরকার বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছিল দু’বছর আগে। পিপরি বুটি নামের ওই গ্রামটি যাতে বিশেষ ব্যক্তি দত্তক নেন, তা নিয়ে দেখভাল করেছিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর তাঁর কাছ থেকেই প্রস্তাব হিসাবে উঠে এসেছিল ‘খিলাড়িয়োঁ কা খিলাড়ি’ অক্ষয়ের নাম।

‘এয়ারলিফট’ মুক্তি পাওয়ার হপ্তা দুয়েক আগেই বিজেপি সভাপতি আমিত শাহের সঙ্গে দেখা করে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন অক্ষমকুমার। ব্যবসায়িক না কি রাজনৈতিক, ধন্দ কাটাতে শাহ টুইট করে জানান, অক্ষয়ের সঙ্গে দেখা হওয়ায় খুব ভালো লাগছে। ওঁর ছবির সাফল্য কামনা করি।

তারও আগে ২০১৩ সালে গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন নরেন্দ্র মোদী স্বয়ং অক্ষয়কুমারের সঙ্গে দেখা করেছিলেন রাজ্যের খেলাধুলোর উন্নয়নের পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনার জন্য।

এ দিকে বুধবারই অক্ষয় একটি ব্যাডমিন্টন খেলার ভিডিও টুইট করেন। সেখানেও কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী রাজ্যবর্ধন সিং রাঠোর মন্তব্য করেন, অক্ষয় একজন ‘ট্রু স্পোর্টসম্যান’।

সব মিলিয়ে বিজেপি তো বটেই, বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যেও জোর জল্পনা চলছে-বিজেপিতে কবে যোগ দিচ্ছেন অক্ষয়? অক্ষয় যে ভাবে সামাজিক কর্মকাণ্ডের মধ্যে দিয়েই বিজেপির সঙ্গে প্রচ্ছন্ন সম্পর্ক তৈরি করে ফেলেছেন তাতে ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে তিনি যদি কেন্দ্রের শাসক দলে অন্যতম মুখ হয়ে ওঠেন, তা হলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন