‘কারও শারীরিক অসুস্থতা থেকে বাণিজ্যিক সুবিধা তোলা অনুচিত’, হাসপাতাল থেকে ফিরে অমিতাভ

0

ওয়েবডেস্ক: শুক্রবার রাতে মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতাল থেকে নিজের বাড়িতে ফিরে এসেছেন অমিতাভ বচ্চন। রুটিন চেক-আপের জন্যই তাঁকে হাসপাতালে যেতে হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। তবুও টানা তিনদিন তাঁর হাসপাতাল-যাপন নিয়ে ভক্তকুলে গভীর উৎকণ্ঠার সৃষ্টি হয়। পাশাপাশি সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবরেও বিভ্রান্তি দেখা দেয়। এই দু’টি বিষয় নিয়েই নিজের ব্লগে প্রতিক্রিয়া জানালেন বিগ-বি।

রাতে বাড়িতে ফিরে আসার পরই ছবি-সম্বলিত দীর্ঘ একটি ব্লগ পোস্ট করেন অমিতাভ। সেখানে তাঁর শারীরিক সুস্থতার প্রার্থনাকারীদের যেমন ধন্যবাদ জানান, তেমনই কারও শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে কী কী করণীয় নয়, সে সব কথাও তুলে ধরেন।

শুক্রবার রাতে যখন জয়া বচ্চন এবং অভিষেক ‘বলিউড শাহেনশাহ’কে হাসপাতাল থেকে নিয়ে বাড়ি ফেরেন, তখন তাঁরা সংবাদ মাধ্যমের কাছে কোনো কথাই বলেননি। এমনকী গত মঙ্গলবার রাত ২টো নাগাদ হাসপাতালে ভরতি হওয়ার পরেও পরিবারের সদস্য ছাড়া কাউকেই ভিতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। পারিবারিক সূত্রে শুধুমাত্র এটুকুই জানানো হয়, নিয়মিত স্বাস্থ্যপরীক্ষার জন্য তিনি হাসপাতালে গিয়েছেন।

কিন্তু সংবাদ মাধ্যম এবং ভক্তকুলের মন এই সংক্ষিপ্ত সংবাদে স্বস্তি পায়নি। স্বাভাবিক ভাবেই জল্পনার জাল বোনা শুরু হয়ে যায়।

সে প্রসঙ্গেই অমিতাভ ব্লগ পোস্টে লিখেছেন, “পেশাদার ডকুমেন্টেশনের কোডটি ভাঙবেন না … অসুস্থতা এবং চিকিৎসা শর্তগুলি একটি গোপনীয় স্বতন্ত্র অধিকার .. একে ব্যবহার এবং তা থেকে বাণিজ্য সুবিধা তোলা সামাজিক ভাবে অনুচিত .. এই পৃথিবীতে সমস্ত কিছু বিক্রির জন্য নয়”…

[ আরও পড়ুন: তিন দিন পর স্ত্রী-পুত্রের সঙ্গে বাড়ি ফিরলেন অমিতাভ ]

পরিশেষে অবশ্য তিনি লিখেছেন, “আমার শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে যাঁরা উদ্বেগ হয়ে পড়ে আমার জন্য প্রার্থনা করেছেন, তাঁদের সবার প্রতি আমার ভালোবাসা এবং কৃতজ্ঞতা” …

  • সমস্ত ছবি: অমিতাভ বচ্চনের ব্লগ পোস্ট থেকে
------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.