ওয়েবডেস্ক: স্পষ্টই দেখা যাচ্ছে, ছবিতে এবং ভিডিওয়, লক্ষ্মীপুজোর ভোগ রাঁধছেন অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়। সে কথা নিজেই গোটা গোটা করে লিখে দিয়েছেন নায়িকা, সবাইকে শুভেচ্ছাও জানিয়েছিলেন কোজাগরীর! তা হলে এর সঙ্গে স্বামী প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের দাবি মেটানোর প্রসঙ্গ এল কোথা থেকে?

আরও পড়ুন: কাছে থাকার পরের ধাপ, নিজেদের প্রযোজনা সংস্থা মিলিয়ে দিচ্ছেন ঋতুপর্ণা-প্রসেনজিৎ?

সে কথায় আসতে হলে একটু ফিরে যেতে হবে একেবারেই সাম্প্রতিক অতীতে। এ বারের দুর্গাপুজোর ষষ্ঠী তিথির কথা। সে সময়ে কেমন করে পুজো কাটাবেন, তার কথায় কথায় জানিয়েছিলেন নায়ক- পুজোতে তিনি বিগত সাত-আট বছর ধরে এক রকম গৃহবন্দিই থাকেন! নতুন ছবি মুক্তি পায়, তার বাণিজ্যিক খবরাখবর নেন, পাশাপাশি চলে শুভেচ্ছা বিনিময়ের পালা! আর এ সবের মধ্যেই তাঁর মন উচাটন হয়ে থাকে পুজোর ভোগের জন্য। যেটা তাঁর বাড়িতে আসে এক কাজিনের বাড়ির পুজো উপলক্ষ্যে!

এ বার বুঝছেন ব্যাপারটা? স্বাভাবিক ভাবেই দুর্গাপুজোয় ভোগ রেঁধে খাওয়ানো তো আর অর্পিতার পক্ষে সম্ভব নয়- নায়কের বাড়িতে যখন দুর্গাপুজো হয় না! কিন্তু কোজাগরী পুজো আপনার-আমার মতোই পালিত হয় তাঁর পরিবারেও। সেই সূত্রেই নিজে হাতে রেঁধে যেমন দেবীকে ভোগ দেন অর্পিতা, তেমনই সেই ভোগে মন ভরে যায় নায়কেরও! এবং তা হওয়ারই কথা! ভিডিওটা দেখুন না- কেমন ভক্তি ভরে ভোগ রাঁধছেন প্রসেনজিতের গৃহলক্ষ্মী!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here