Connect with us

বিনোদন

এক গামলা মটন, বিনিময়ে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের গুমনামি-তে কাজ পেলেন বাবুল সুপ্রিয়?

srijit mukherji and babul supriyo

ওয়েবডেস্ক: একেই কি বলে ফূর্তির প্রাণ, আসানসোলের মাঠ?

তা, টলিউড যদি এ কথা বলেই থাকে, তা হলে দোষ দেওয়া যাবে না! কেন না, যত দূর যা জানা গিয়েছে, গুমনামি ছবিটা নিয়ে না কি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর পরিবারের সদস্যদের আর কোনো আপত্তি নেই! সে মর্মে কী খবর ছাপা হয়েছিল আর তার জেরে কী পোস্ট করেছিলেন সৃজিত মুখোপাধ্যায়, তা সরাসরি পড়ে নিতে পারেন নীচের লিঙ্কে ক্লিক করে!

আরও পড়ুন: প্রসঙ্গ গুমনামি, নেতাজির পারিবারিক আপত্তি সংক্রান্ত সব কিছু খোলসা করছেন সৃজিত মুখোপাধ্যায়

যাই হোক, আপত্তি যদি নাই থাকে, তা হলে তো আর মনের সুখে ছবির কাজ চালিয়ে যেতে অসুবিধে নেই! সৃজিতও তাই করছেন! এর মধ্যে উত্তর প্রদেশ থেকে তিনি ঘুরে এসেছেন, দেখে এসেছেন গুমনামি বাবার স্মৃতিধন্য যা কিছু! পাশাপাশি, আরেক প্রস্ত রেকির জন্য হাজির হয়েছেন আসানসোলেও। খবর মোতাবেকে, সেখানেও না কি ছবির কিছু শুটিং হবে!

ও দিকে, সৃজিতের টুইটার হ্যান্ডেল বলছে, আসানসোলে তাঁরা আতিথ্য গ্রহণ করেছিলেন বাবুল সুপ্রিয়র বাড়িতে। বেশ বড়ো এক গামলা মটন সহযোগে অতিথিদের দেখভালে কোনো কসুরই করেননি বাবুল! তারই কি হাতে গরম ফল গুমনামি ছবিতে এক গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পাওয়া?

এই জায়গায় এসে একটু টলিউডের নিন্দুকদের কথা না শুনলেই নয়! প্রশ্ন তুলছেন অনেকে- সৃজিতের ছবিতে কি আজকাল অর্থলগ্নি করেন বাবুল? যার শর্ত মোতাবেকে সেই উমা থেকে শাহজাহান রিজেন্সি হয়ে এ বার গুমনামিত-তেও বাঁধা থাকছে কাজ? তা ছাড়া, এই যে আপ্যায়ণের বহর, এটাও কেমন একটা প্রযোজকসুলভ নয়?

তা, লোকে তো কত কী বলেই থাকে! সব কথায় পাত্তা দিলে কী আর চলে! তেমনটাই যদি হতো, সে খবর কী আর ঘটা করে নিজেরাই জানাতেন না বাবুল আর সুপ্রিয়? ঠিক এই আসানসোল আখ্যানের মতোই?

বিনোদন

ময়দান: সৈয়দ আবদুল রহিমের বায়োপিক মুক্তির নতুন দিন জানালেন অজয় দেবগন

এখন অপেক্ষা ২০২১-এর আগস্ট পর্যন্ত!

ওয়েবডেস্ক: প্রথমে ঠিক ছিল চলতি বছরের ১১ ডিসেম্বর মুক্তি পাবে ভারতীয় ফুটবলের স্বর্ণযুগের দোর্দণ্ডপ্রতাপ সৈয়দ আবদুল রহিমের (Syed Abdul Rahim) আত্মজীবনী-নির্ভর ছবি ‘ময়দান’ (Maidaan)। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে ওই ছবির মুক্তির দিন অনেকটাই পিছিয়ে গেল।

শনিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবির একটি পোস্টার পোস্ট করেছেন অজয় দেবগন (Ajay Devgn)। অমিত শর্মা পরিচালিত এই ছবিতে তিনিই রহিমসাহেবের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।

অজয় লিখেছেন, “২০২১ সালের স্বাধীনতা দিবসের সপ্তাহ। একটা অপ্রকাশিত কাহিনি, যা প্রত্যেক ভারতবাসীকে গর্বিত করবে। ১৩ আগস্ট ছবিটি মুক্তি পাবে”। এই ছবির সহ-প্রযোজক বনি কাপুর এবং জি স্টুডিও।

সাম্প্রতিক আর একটি টুইটে অজয় লিখেছিলেন, “এই কাহিনি ভারতীয় ফুটবলের স্বর্ণযুগের। এবং ওই সময়ের সব থেকে বড়ো ও সফল কোচের”।

১৯৫১-৬২ ভারতীয় ফুটবলের এক অবিস্মরণীয় যুগ। সে সময়টিকেই এই ছবিতে ধরতে চেয়েছেন অমিত। ভারতের আধুনিক ফুটবলের রূপকার রহিমসাহেবের সময়কালকেই তুলে ধরা হয়েছে এই ছবিতে। ওই চরিত্রটিতেই অভিনয় করছেন অজয় দেবগন।

পরিচালক আগেই জানিয়েছেন, ১৯৫২ সালের হেলসিঙ্কি অলিম্পিকে যুগোস্লাভিয়ার কাছে ১০ গোল খাওয়া ভারত কী ভাবে ঘুরে দাঁড়াল, সেখান থেকেই ছবির কাহিনি ডালপালা বিস্তার করেছে। এখন অপেক্ষা ২০২১-এর আগস্ট পর্যন্ত!

Continue Reading

বিনোদন

‘সড়ক ২’ পোস্টার: ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগে মহেশ ভাট, আলিয়া ভাটের বিরুদ্ধে মামলা

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অভিযোগ ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত। তাই মহেশ ভাটের আসন্ন ছবি ‘সড়ক ২’-এর (Sadak 2) বিরুদ্ধে মামলা হল বিহারে।

মুজফ্‌ফরপুরের সিকান্দরপুরের বাসিন্দা আচার্য চন্দ্রকিশোর পরাশরের অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর আইনজীবী সনু কুমার চলচ্চিত্রনির্মাতা মুকেশ ভাট (Mukesh Bhatt)  ও মহেশ ভাট (Mahesh Bhatt) এবং অভিনেত্রী আলিয়া ভাটের (Alia Bhatt) বিরুদ্ধে মুজফ্ফরপুর আদালতে মামলা করেছেন।

এঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ‘সড়ক ২’-এর পোস্টারের মাধ্যমে হিন্দু ভাবাবেগে আঘাত করা হয়েছে। ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৯৫ক ধারা (ধর্মীয় অনুভূতির ইচ্ছাকৃত অবমাননা) এবং ১২০খ ধারা (ফৌজদারি ষড়যন্ত্র) মোতাবেক তাঁদের অভিযুক্ত করা হয়েছে।

মুখ্য বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট মুকেশ কুমার ৮ জুলাই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেছেন।

কী অভিযোগ

১৯৯১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ব্লকব্লাস্টার ছবি ‘সড়ক’-এর উত্তরাংশ (সিকোয়েল)‘সড়ক ২’। এই ফিল্মের পোস্টারে কৈলাশ শৃঙ্গের ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। অভিযোগকারীর বক্তব্য, এর ফলে হিন্দু ধর্মের ভাবাবেগ আহত হয়েছে।

চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেছেন মুকেশ ভাট। এই চলচ্চিত্রের আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক হল তাঁর বড়দা মহেশ ভাটের পরিচালনা। দীর্ঘ দু’ দশক পরে আবার চলচ্চিত্র পরিচালনায় ফিরে এলেন মহেশ ভাট।

মহেশ ভাটের কন্যা আলিয়া ভাট ছাড়াও এই চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন পূজা ভাট ও সঞ্জয় দত্তও। এই দু’ জনেই তিন দশক আগেকার ‘সড়ক’-এ মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন।   

Continue Reading

বিনোদন

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন সরোজ খান

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বেশ কিছু দিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার রাতে সবাইকে ছেড়ে না-ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন বিখ্যাত কোরিওগ্রাফার সরোজ খান (Saroj Khan)। ২০২০-তে বলিউডে আরও এক নক্ষত্রপতন হল।

বুধবার রাত থেকেই তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছিল। বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে মুম্বইয়ের হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। সেখানেই সব শেষ। মায়ের মৃত্যুর খবর সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন তাঁর মেয়ে। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭১ বছর।

২০ জুন শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে বান্দ্রার গুরু নানক হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন সরোজ। অন্যান্য লক্ষণ না থাকলেও শ্বাসকষ্টের সমস্যা থাকায় তাঁর কোভিড টেস্ট করা হয়। সেই টেস্টের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল।

২৪ জুন পরিবারের তরফে জানানো হয়, পর্যবেক্ষণে থাকলেও তাঁর অবস্থার উন্নতি হয়ছে। পরিস্থিতির অবনতি না হলে আগামী দু’-তিন মধ্যেই ছেড়ে দেওয়া হবে তাঁকে। কিন্তু বান্দ্রার হাসপাতাল থেকে আর বাড়ি ফেরা হল না সরোজের। হৃদ্‌যন্ত্র বিকল হয়ে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পৃথিবী থেকে বিদায় নিলেন তিনি।

প্রায় চার দশক ধরে বলিউডের সঙ্গে জড়িত ছিলেন তিনি। দু’ হাজারেরও বেশি গানে কোরিয়োগ্রাফি করেছেন তিনি। তিন বার ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ডও জিতেছিলেন তিনি।

২০২০টা বলিউডের কাছে বার বার শোকের খবর নিয়ে আসছে। ইরফান খান, ঋষি কপুর, ওয়াজিদ খান, সুশান্ত সিংহ রাজপুতের পর এ বার চলে গেলেন সরোজও।

Continue Reading
Advertisement
শিক্ষা ও কেরিয়ার13 mins ago

সিবিএসই ২০২০: ফলাফল বেরোলে কী ভাবে মার্কশিট এবং সার্টিফিকেট পাওয়া যাবে?

দেশ30 mins ago

উত্তরপ্রদেশে ৮ পুলিশ হত্যা: ‘ভেতরের’ ভূমিকা নিয়ে পুলিশের তদন্ত, স্টেশন অফিসার সাসপেন্ড

দেশ45 mins ago

এই প্রথম ভারতে এক দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২৪ হাজারের বেশি

দেশ2 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৪৮৫০, সুস্থ ৯৩৮১

Nitish Kumar
দেশ2 hours ago

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার করোনা নেগেটিভ

রবিবারের পড়া3 hours ago

রবিবারের পড়া: ভারতীয় ক্রিকেট-বিপ্লবের দুই কারিগর

কলকাতা15 hours ago

শর্ট সার্কিট থেকে আগুন, বেহালায় পুড়ে মৃত্যু মা-মেয়ের

দেশ15 hours ago

করোনা মহামারিতে ‘ফুচকা’র জন্য গলা শুকোচ্ছে? এসে গেল ‘এটিএম’

নজরে