ওয়েবডেস্ক: কবিপক্ষে বলিউডের পর্দায় ফিরে এল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিখ্যাত ছোটোগল্প। তবে, ‘কাবুলিওয়ালা’ হয়ে নয়, বরং ‘বায়োস্কোপওয়ালা’ হয়ে। যে ছবির নামভূমিকায় অভিনয়ের সুবাদে অনেক দিন পরে ভারতীয় ছবির রুপোলি পর্দা ফিরে পাবে ড্যানি ডেনজংপার মতো প্রতিভাবান অভিনেতাকে।

bioscopewala

কিন্তু বিতর্ক সহজে থামার নয়। কেন না, বাংলা হোক বা হিন্দি, ভারতীয় ছায়াছবির তালিকায় ‘কাবুলিওয়ালা’ এক বেশ জবরদস্ত জায়গা দখল করে রেখেছে। বাংলায় ১৯৫৭ সালে ছবিটি তৈরি করেছিলেন তপন সিংহ। কাবুলিওয়ালা রহমতের চরিত্রে ছবি বিশ্বাসের অভিনয় আর নেপথ্য সঙ্গীতে পণ্ডিত রবি শঙ্করের যুগলবন্দি এক অন্য মাত্রা দিয়েছিল ছবিটিকে। তেমনই ১৯৬১ সালে বলিউডে হেমেন গুপ্ত যখন ছবিটি তৈরি করেন, তখন রহমতের চরিত্রে দর্শকের মনে দাগ কেটে যান বলরাজ সাহনি।

bioscopewala

বোঝাই যাচ্ছে, সেই উত্তরাধিকারের সূত্র ড্যানি ডেনজংপাকে দাঁড় করিয়েছে বেশ কঠিন প্রতিযোগিতার মুখে! কিন্তু তার চেয়েও বড়ো করে প্রশ্নচিহ্ন তৈরি হয়েছে পরিচালক দেব মধেকরকে নিয়ে। বেশ কথা যে তিনি আধুনিক পটভূমিকায় তৈরি করতে চেয়েছেন ছবিটাকে। দেখাতে চেয়েছেন গোটা গল্পটা মিনির স্মৃতিচারণ এবং যাত্রাপথের সৌজন্যে। কিন্তু কাবুলিওয়ালাকে খামোখা বায়োস্কোপওয়ালায় রূপান্তরিত করার কারণ কী? ঠাকুরের সৃষ্টির কপিরাইট উঠে যাওয়া?

bioscopewala

বলা মুশকিল! তবে পরিচালক একটু বেশিই স্বাধীনতা নিয়ে ফেলেছেন ছবিটি তৈরি করতে গিয়ে। মিনি বসুর বাবার বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু, কাবুলিওয়ালার খোঁজে আফগানিস্তান যাত্রা- নানা দিকে ছড়িয়ে গিয়েছে গল্পের খেই!

bioscopewala

পরিণাম?

নিজেই সরাসরি দেখে নিন ছবির ট্রেলারে! এটুকুই শুধু বলা যায়- ড্যানি হতাশ করবেন না!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here