৬ মাসের জেল বলিউড অভিনেত্রী কোয়েনা মিত্রর, যাচ্ছেন উচ্চ আদালতে

0
koena mitra
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: কোনো আবেদনই ধোপে টিকল না আদালতে। প্রায় ছ’বছর মামলা চলার পর বলিউড অভিনেত্রী কোয়েনা মিত্রকে ছ’মাসের কারাবাসের শাস্তি দিল অন্ধেরি মেট্রোপলিটন আদালত।

ঘটনায় প্রকাশ, ব্যক্তিগত প্রয়োজনে মডেল পুনম শেঠির থেকে ২২ লক্ষ টাকা ঋণ নেন কোয়েনা। সেই টাকা শোধ করতেই একটা অংশ হিসাবে হিসেবে ৩ লক্ষ টাকার একটি চেক দেন অভিনেত্রী। ওই চেক বাউন্স করে। এই ঘটনার কোনো সদুত্তর না পেয়ে পুনম ২০১৩-র ১৯ জুলাই কোয়েনাকে আইনি নোটিশ পাঠান। তার পরেও কোনো গ্রহণযোগ্য উত্তর দেননি কোয়েনা। পাশাপাশি টাকাও ফেরত দেন না। অবশেষে ১০ অক্টোবর আদালতে মামলা দায়ের করেন পুনম।

সেই মামলার রায়দানের সময়ে অন্ধেরি মেট্রোপলিটন আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট, কেতকী চাভান কোয়েনা মিত্রের সব যুক্তি খারিজ করে দেন। তাঁকে ছ’মাসের কারাবাসের শাস্তি দেন।

এর আগে অবশ্য প্রতিটি শুনানিতে কোয়েনার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, এত টাকা ধার দেওয়ার ক্ষমতাই পুনমের নেই। স্বাভাবিক ভাবেই তাঁর বিরুদ্ধে নিয়ে আসা সমস্ত অভিযোগ মিথ্যা। এমনকী কোয়েনা এমনও অভিযোগ করেন, পুনম তাঁর চেকটি চুরি। তবে কোয়েনার এই ধরনের অভিযোগ বিশেষ গুরুত্ব পায়নি আদালতে।


রায়ের কথা শুনে স্বাভাবিক ভাবেই খুশি হতে পারেননি কোয়েনা। কোয়েনা তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগকে ‘সাজানো’ হিসাবেই দেখছেন। আদালতের রায়দানের পর একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্টে তেমনই ইঙ্গিতই দিয়েছেন তিনি।

তিনি সংবাদ মাধ্যমের কাছে নিজের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলেন, মামলাটি পুরোপুরি মিথ্যা এবং সাজানো। এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে তিনি উচ্চ আদালতে আবেদন জানাবেন। একই সঙ্গে চূড়ান্ত রায়দানের দিন নিজের আইনজীবীর অনুপস্থিতির কথাও তুলে ধরেন বলিউড অভিনেত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.