খবরঅনলাইন ডেস্ক: পরপর বহু নক্ষত্র পতনের সাক্ষী হয়েছে ২০২০ সাল। টলিবলি, খেলারাজনীতি-সহ অনেকেই তাঁদের নতুন সৃষ্টিতে ইতি টেনেছেন এই বছর। তাঁদের মধ্যে বলিউডের এই ব্যক্তিত্বদের আর দেখা যাবে না।

১। নিম্মি

রাজ কাপুরের প্রথম আবিষ্কার বলিউডের অতীত দিনের নায়িকা নিম্মি প্রয়াত হন ২৫ মার্চ। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর। গত শতকের পঞ্চাশ ও ষাটের দশকে বলিউডের ফিল্মে তিনি চুটিয়ে অভিনয় করে গিয়েছেন। জন্মসূত্রে তাঁর নাম ছিল নবাব বানু। পর্দার জন্য রাজ কপুর তাঁর নাম দিয়েছিলেন নিম্মি।   

Loading videos...

২। ইরফান খান

২৯ এপ্রিল  মারা যান  অভিনেতা ইরফান খান। ৩৫ বছরের অভিনয়জীবন। শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জাতীয় পুরস্কার, ৪টি ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড, পদ্মশ্রী পান। এ ছাড়াও বহু পুরস্কার লাভ করেন। ২০১৮ সাল থেকে তিনি ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়ছিলেন। তাঁর মস্তিষ্কে নিউরো-এন্ডোক্রাইন টিউমার ছিল। তবে তিনি কোলন ক্যানসারে মারা যান।

৩। ঋষি কাপুর

৩০ এপ্রিল মারা যান প্রবীণ অভিনেতা ঋষি কাপুর। ‘মেরা নাম জোকার’-এ শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয়ে আত্মপ্রকাশ। ১টি জাতীয় পুরস্কার, ৪টি ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড ও ৩টি জি সিনে অ্যাওয়ার্ড পান। প্রবল শ্বাসকষ্ট নিয়ে ২৯ এপ্রিল হাসপাতালে ভর্তি হন। পরের দিনই চলে যান।

৪। মোহিত ভাগেল

২৩ মে মারা যান ‘রেডি’ ছবির অভিনেতা মোহিত ভাগেল। ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। করোনা আতঙ্কে হাসপাতালগুলোতে ঠাঁই দেওয়া হয়নি তাঁকে।

৫। ওয়াজিদ খান

১ জুন মারা যান বিখ্যাত সাজিদ-ওয়াজিদ জুটির অন্যতম সংগীত পরিচালক ওয়াজিদ খান। ‘প্যায়ার কিয়া তো ডরনা কেয়া’ ছবিতে নাকি তাঁদের জুটির প্রথম কাজ। করোনায় আক্রান্ত হন। তার ফলে কিডনিতে প্রভাব পড়ে। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৪২ বছর।

৬। বাসু চট্টোপাধ্যায়

৪ জুন মারা যান পরিচালক বাসু চট্টোপাধ্যায়। শ্রেষ্ঠ পরিচালক ও বেস্ট স্ক্রিনপ্লে  ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড, শ্রেষ্ঠ ছবির জন্য ফিল্ম ক্রিটিক অ্যাওয়ার্ড-সহ বহু পুরস্কার পান। বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর।

৭। অনিল সূরি

রাজকুমার-রেখা অভিনীত ‘কর্মযোগী’ এবং ‘রাজতিলক’-এর মতো জনপ্রিয় ছবির প্রযোজক অনিল সূরি কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হয়ে ৪ জুন মুম্বইয়ে প্রয়াত হন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।   

৮। সুশান্ত সিংহ রাজপুত

১৪ জুন মৃত্যু হয় সুশান্ত সিংহ রাজপুতের। বাসভবন থেকে উদ্ধার হয় দেহ। তাঁর মৃত্যুর তদন্ত চালাচ্ছে তিন কেন্দ্রীয় সংস্থা সিবিআই, ইডি ও এনসিবি। মৃত্যুর সময় তাঁর বয়স হয়েছিল ৩৪ বছর।

৯। সরোজ খান

৩ জুলাই বলিউডের জনপ্রিয় নৃত্য পরিচালক সরোজ খান মারা যান। মাত্র তিন বছর বয়সে শিশুশিল্পী হিসাবে তার কর্মজীবন শুরু। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি। বয়স হয়েছিল ৭১ বছর। ৪০ বছরের দীর্ঘ সময় ধরে বলিউডের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ৩ হাজারের বেশি গানে নৃত্য পরিচালনা করেছেন।

১০। জগদীপ

৮ জুলাই মারা যান কমেডিয়ান অভিনেতা জগদীপ। চার শতাধিক ছবিতে কাজ করেছেন জগদীপ। দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮১ বছর।

১১। রজত মুখোপাধ্যায়

‘প্যায়ার তুনে ক্যায়া কিয়া’ এবং ‘রোড’-এর মতো বলিউড ছবির পরিচালক রজত মুখোপাধ্যায় ১৯ জুলাই জয়পুরে প্রয়াত হন। ‘উমিদ’, ‘লাভ ইন নেপাল’ প্রভৃতি ছবিরও পরিচালক তিনি।  

১২। সমীর শর্মা

৫ আগস্ট মারা যান ‘হাসি তো ফাসি’ অভিনেতা সমীর শর্মা। তাঁর মুম্বইয়ের বাড়ি থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়।

১৩। নিশিকান্ত কামাত

১৭ আগস্ট মারা যান পরিচালক নিশিকান্ত কামাত। লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত হয়ে হায়দরাবাদের একটি হাসপাতালে মারা যান তিনি। ‘দৃশ্যম’ ছবি পরিচালনা করেছিলেন তিনি।

১৪। এস পি বালাসুব্রহ্মণ্যম

২৫ সেপ্টেম্বর চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে  মারা যান গায়ক এস পি বালাসুব্রহ্মণ্যম। করোনাজনিত জটিলতায় মারা যান তিনি।

১৫। ফরাজ খান

৪ নভেম্বর মারা যান ‘মেহন্দি’ অভিনেতা ফরাজ খান। বুকে সংক্রমণের ফলে স্নায়ুজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি।মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫০ বছর।

১৬। আসিফ বাসরার

১২ নভেম্বর ‘পাতাললোক’ অভিনেতা আসিফ বাসরার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। হিমাচল প্রদেশের ম্যাকলিয়ডগঞ্জের বাসভবন থেকে উদ্ধার হয় তাঁর দেহ। পুলিশের অনুমান, তিনি আত্মহত্যা করেছেন।  ‘ব্ল‍্যাক ফ্রাইডে’-তে কুরেশির চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন।

আরও – কেন পর্নহাবের বিরুদ্ধে মামলা করছেন ৪০ জন মহিলা, যৌনপাচারের ভিডিও সম্পর্কে আপনার যা জানা দরকার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.