Sridevi and Boney Kapoor
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: বলিউড অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যুর এক বছর পর ফের বিতর্ক উসকে দিয়েছিলেন ডিজিপি ঋষিরাজ সিং। গত বৃহস্পতিবার তিনি দাবি করেন, দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়নি শ্রীদেবীর। কারণ, তাঁকে যে খুন করা হয়েছিল, তার নেপথ্যে বেশ কিছু ‘পরিস্থিতিগত প্রমাণ’ ছিল।

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে ঋষিরাজের মন্তব্য প্রকাশিত হওয়ার পর শ্রীদেবী-মৃত্যু রহস্য নিয়ে নতুন করে তোলপাড় শুরু হয়। তবে এ ধরনের দাবির বিরুদ্ধে মুখ খুলতে চাননি শ্রীদেবীর স্বামী বনি কাপুর। শুক্রবার টাইসম অব ইন্ডিয়া একটি ওয়েবপোর্টালে বনির মন্তব্য উদ্ধৃত করে। সেখানে বনি বলেন, তিনি এ ধরনের ভিত্তিহীন দাবি নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চান না। পরক্ষণেই তিনি ফের বলেন, এই ধরনের দাবি একটা কল্পনার অংশ। যা নিয়ে সংবাদ মাধ্যম হইচই করছে।

সম্প্রতি শ্রীদেবী-মৃত্যু রহস্য নিয়ে কেরলের ডিজিপি (কারা) ঋষিরাজের লেখা একটি নিবন্ধ প্রকাশিত হয়। ওই নিবন্ধটি কেরলের একটি সংবাদপত্র গুরুত্ব সহকারে প্রকাশ করে। যেখানে তিনি দাবি করেন, তাঁর এক বন্ধু ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ। তিনিও না কি মনে করেন, ওই মৃত্যু রহস্যের তদন্তে পরিস্থিতিগত প্রমাণগুলি বিবেচনা করা হয়নি। মদ্যপানের ফলে অভিনেত্রী যত বেশি-ই মাতাল হয়ে যান না কেন, মাত্র এক ফুট গভীরতার বাথটবে ডুবে তাঁর মৃত্যু হওয়া সম্ভব নয়। এ ধরনের মৃত্যু তখনই সম্ভব, যদি কেউ তাঁকে ডুবিয়ে মারার চেষ্টা করে।

আকস্মিক ভাবে ডিজিপি যে ফরেনসিক বন্ধুর কথা উল্লেখ করেছেন, সেই ড. উমাদথনের মৃত্যু হয়েছে এক সপ্তাহ আগেই। অপরাধের কিনারা করতে প্রায় অব্যর্থ ওই উমাদাথনকে বিশেষজ্ঞ বলা হতো।

গত বছর দুবাইয়ের একটি হোটেলে মৃত্যু হয় শ্রীদেবীর। ফরেনসিক রিপোর্টে দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু বলে উল্লেখ করা হয় ওই ঘটনাকে। তবে ঋষিরাজ রীতি মতো চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে দাবি করেন, অভিনেত্রীর মুত্যুর প্রকৃত ঘটনা অন্য কিছু হতে পারে। যা খুনও হতে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here