নয়াদিল্লি: ‘ইন্টারকোর্স’ শব্দটায় প্রবল লজ্জা পান সেন্সর বোর্ডের প্রধান পহলাজ নিহালনি। আর তাই অনুষ্কা শর্মা ও শাহরুখ খান অভিনীত ইমতিয়াজ আলির আগামী ছবি ‘যব হ্যারি মেট সেজল’-এ ওই শব্দের ব্যবহারে ভীষণ বিচলিত তিনি।

“ইন্টারকোর্স নিয়ে যে সব কথাবার্তা আছে তা বাদ দেওয়ার শর্তে ওই ফিল্মের ট্রেলারের জন্য ‘ইউএ’ সার্টিফিকেট দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ওই অংশ বাদ দিয়ে ট্রেলারটা এখনও আমাদের কাছে পাঠানো হয়নি। সুতরাং নীতিগত ভাবে ওই ট্রেলার এখনও সেন্সর বোর্ড পাশ করেনি” – সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন (সিবিএফসি) তথা সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান পহলাজ নিহালনি এ কথা বলেন। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, ‘ইন্টারকোর্স’ সংক্রান্ত কথাবার্তা-সহ ওই ‘আনসেনসর্ড’ ট্রেলার ভারতের কোনো মাধ্যমেই দেখানো যাবে না।

বিভিন্ন নিউজ চ্যানেলে যে ট্রেলার দেখানো হচ্ছে, সে সম্পর্কে নিহালনি বলেন, ‘আনকাট’ ট্রেলার ইউ-টিউবে ডাউনলোড করা হয়েছে। “ইন্টারনেটে কিছু দেখানো হলে আমরা (সিবিএফসি) আমরা তা বন্ধ করতে পারি না। টিভিতে ‘আনসেনসর্ড’ ফুটেজ সম্প্রচার করা আমরা বন্ধ করতে পারি এবং তা করব। ট্রেলারটা ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে এবং তা বিভিন্ন চ্যানেলে তা দেখানো হচ্ছে। এটা সম্পূর্ণ আইনের পরিপন্থী এবং ইমতিয়াজ আলির ওই ফিল্মের বাদ যাওয়া অংশ যে সব চ্যানেল দেখিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে আমরা কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার পরিকল্পনা করছি” – বলেন নিহালনি।

ফিল্মের প্রোমোতে দেখানো হয়েছে, শাহরুখ খানের হাতে ‘ইনডেমনিটি বন্ড’ জাতীয় কিছু দিয়ে অনুষ্কা শর্মা বলছেন, দু’ জনে যদি ‘ইন্টারকোর্স’ করে তা হলেও কোনো আইনগত জটিলতা হবে না।

‘যব হ্যারি মেট সেজল’ ছবিটি ৪ আগস্ট মুক্তি পাওয়ার কথা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন