ওয়েবডেস্ক: প্রথম যখন ঘাড়ে ব্যান্ডেজ দেখা গেল, তখনই শুরু হয়েছিল জোর হইচই! তা হলে কি রণবীর কাপুরের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার এত বছর পরে ইংরেজিতে তাঁর নাম আর পদবীর আদ্যক্ষর আর কে, যেটা কি না নিজের ঘাড়ে ট্যাটু করে রেখেছিলেন দীপিকা পাড়ুকোন, সেটা মুছে ফেলতে চলেছেন?

deepika padukone

সময় মতো জানা গেল, ও সব কিছু নয়! ট্যাটুটায় স্রেফ কিছু নয়া আঁকিবুঁকি যোগ করেছেন নায়িকা! সেই কাজ চলছিল বলেই ঘাড়ের এই জায়গাটুকু ঢাকা ছিল ব্যান্ডেজ দিয়ে!

তা, ঠিক কেমন আঁকিবুঁকি হয়েছে, তা দীপিকার জিমের প্রশিক্ষক ন্যামের সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা ছবির সৌজন্যে টের পাওয়া গিয়েছিল বিলক্ষণ! দেখা গিয়েছিল ‘আর’ অক্ষরটা প্রায় ঠিকই আছে, কিন্তু ‘কে’-টা অনেকটাই ঢেকে গিয়েছে নকশার বাহারে! মানে হবু স্বামীও তো রণবীর, তাঁরও নামের আদ্যক্ষর ইংরেজিতে একই! তাই এই কারিকুরি!

কিন্তু কানের চলচ্চিত্র উৎসবের লাল গালিচায় যখন পা রাখলেন দীপিকা, তখন সবাই চমকে উঠল! ফের কথা শুরু হল ট্যাটু নিয়ে। কেন না, এ বার আর ট্যাটুটা দেখাই যাচ্ছে না! তা হলে কি শেষ পর্যন্ত ওটা সার্জারি করে মুছেই ফেললেন নায়িকা?

দীপিকার এক ঘনিষ্ঠ সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, ব্যাপারটা তেমন কিছু নয়! স্রেফ মেক-আপের জেরে ঢেকে দেওয়া হয়েছে ওটাকে! পাশাপাশি, ঘাড়ের এক পাশে চুল ফেলে রেখে বা কলারওয়ালা ড্রেস পরে যতটা সম্ভব আড়াল করে রাখা হচ্ছে ওটাকে!

আর তার সঙ্গেই বলিউডের অন্দরমহলে শুরু হয়ে গিয়েছে জোর কানাকানি! খবর আসছে, রণবীর সিংয়ের বাড়ির লোকজন না কি হবু বউমার ঘাড়ে প্রাক্তনের নাম দেখাটা মোটেই পছন্দ করছেন না! সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তাঁরা, যদি ট্যাটু রাখতেই হয়, তবে ‘কে’-টা ‘এস’ করতেই হবে! অর্থাৎ সিং!

সেই জন্যেই না কি দীপিকা বিশ্বদরবারে আর ফলাও করে নিজের ট্যাটু দেখাননি! বলিউড বলছে, যত দিন না পুরো কাজ শেষ হচ্ছে, তত দিন এ রকমই চলবে!

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন