ওয়েবডেস্ক: ফের তা হলে ড. হংসরাজ হাতির চরিত্রে নয়া অভিনেতার প্রয়োজন হল! কেন না, ২০০৯ সালে এই চরিত্রের অভিনেতা নির্মল সোনির জায়গায় ‘তারক মেহতা কা উল্টা চশমা’ ধারাবাহিকে নিজের জায়গা করে নিয়েছিলেন কবি কুমার আজাদ। কিন্তু সোমবার দুপুরে তাঁর আকস্মিক প্রয়াণে ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি হতে চলেছে।

জানা গিয়েছে, দীর্ঘ ৮ বছর ধরে দর্শকদের মাতিয়ে রাখা আজাদ বেশ কিছু দিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন।” কিন্তু অসুস্থ বোধ করলেও তিনি কখনই শুটিংয়ে অনুপস্থিত থাকেননি। শরীর খারাপ নিয়েই কাজ করে গিয়েছেন। শুধু সোমবার সকালেই তিনি ফোনে জানিয়ে দেন- শরীরটা একটু বেশিই খারাপ লাগছে, তাই শুটিংয়ে আসতে পারবেন না”, জানিয়েছেন ধারাবাহিকের শুটিং দলের এক সদস্য।

খবর বলছে, আজাদ যখন হৃদরোগে আক্রান্ত হন, তখন তাঁর পরিবারের সদস্যরা কেউই বাড়িতে ছিলেন না। তাঁরা লখনউয়ে গিয়েছিলেন এক আত্মীয়ের বিয়েতে। খবর পেয়ে তাঁরা মুম্বইয়ে ফিরছেন। যদিও আজাদের চিকিৎসার ত্রুটি হয়নি বলেই জানা যাচ্ছে। হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পরও তিনি শারীরিক অস্বস্তির কথাটুকু জানাতে পেরেছিলেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে তার পর ওকহার্ট হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন এবং ময়নাতদন্তের উদ্যোগ নেন।

স্বাভাবিক ভাবেই আজাদের অকালমৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমেছে ধারাবাহিকের কলাকুশলী মহলে। “ওঁর মতো সদর্থক মানুষ আর হয় না। তুখোড় অভিনেতা তো উনি বটেই! শরীর খারাপ থাকা সত্ত্বেও যে ভাবে কাজ করে চলেছিলেন তা অবিশ্বাস্য! আমরা ওঁর প্রয়াণে খুবই মর্মাহত, কী বলব, বুঝতে পারছি না”, জানিয়েছেন ধারাবাহিকের প্রযোজক অসিত কুমার মোদী।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here