jatileswar mukhopadhyay

ওয়েবডেস্ক: ধীরে ধীরে শেষের মুখে বছর হারাচ্ছে তার সুর। সেই প্রান্তবেলাতেই জীবনের কাছ থেকে বিদায় নিলেন প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী জটিলেশ্বর মুখোপাধ্যায়।

জানা গিয়েছে, অনেক দিন ধরেই বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন সঙ্গীতশিল্পী। দীর্ঘ দিন ধরে শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার দুপুরে জীবনছন্দে ইতি টেনে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন জটিলেশ্বর। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮৩ বছর।

১৯৩৪ সালের ১৩ ডিসেম্বর চনন্দননগরে জন্মগ্রহণ করেন এই কিংবদন্তি বাঙালি সঙ্গীতশিল্পী। যদিও গান লেখা, তাতে সুর সংযোজন তাঁর পক্ষে কঠিন কিছু নয়, তবু প্রথম গানের অ্যালবামে কথা ও সুর দেন সুধীন দাশগুপ্ত। দ্বিতীয় অ্যালবাম ১৯৬৪ সালে, তার গানের কথা ও সুরের নেপথ্যে ছিলেন সলিল চৌধুরী। এর পরে বাংলা গানের জগতে এক অপরিহার্য নামে পরিণত হন জটিলেশ্বর।

তবে জীবনের প্রথম দু’টি অ্যালবামে তৎকালীন মেগাফোনের সঙ্গে সুরের সঙ্গত ঘটেছিল জটিলেশ্বরের। তখনও তাঁর গানের ডালিতে ঋদ্ধ হয়নি এইচএমভি। ১৯৬৮ সালে এইচএমভি থেকে প্রকাশিত হয় নতুন অ্যালবাম ‘বঁধুয়া’। জটিলেশ্বরের গান বলতেই যা সবার আগে মনে পড়ে, সেই বিখ্যাত ‘বঁধুয়া আমার চোখে জল এনেছে’ গানটি ছিল এই অ্যালবামেই। এর পর ফের ১৯৭৪ সালে এইচএমভি আর জটিলেশ্বরের যুগলবন্দী বাংলা সঙ্গীতশিল্পকে উপহার দেয় প্রবাদপ্রতিম গান ‘এ কোন সকাল’!

চিরন্তন এই সুরসফরের ছন্দ কেটে গেল বৃহস্পতিবার। বাঙালি ভুলবে না এই সকালের কথা, যার কুয়াশায় লেগে ছিল কিংবদন্তি এই শিল্পীর বিদায়ের বার্তা!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here