ওয়েবডেস্ক: দুর্নাম তো একটা আছেই এই বাংলা ছবি কারখানার- একজন পরিচালক একটা কোনো চরিত্র কাউকে দিলে আরেকজনও ঠিক সেই চরিত্রে অন্য প্রোজেক্টে নেমে পড়েন! তা, যশ দাশগুপ্ত আর পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গেও কি সেটাই হল?

হল তো বটেই, দু’জনেই তাঁদের পরের ছবিতে অভিনয় করছেন ট্যাক্সিচালকের ভূমিকায়। এর মধ্যে শগুফতা রফিকের পরিচালনায় যশের ছবির নামও ‘ট্যাক্সি ড্রাইভার’, ও দিকে পরমব্রত নিজেই ছবির পরিচালক, সেটার নাম ‘খেলেছি আজগুবি’!

 

View this post on Instagram

 

Late night Power Nap during shoot…

A post shared by Yash (@yashdasgupta) on

আরও পড়ুন: সঙ্কল্প ২০১৯: টলিউড থেকে অবসর নিচ্ছেন যশ?

খবর মোতাবেকে, রফিকের ছবির বিষয় মূলত ভালোবাসা! এক অন্ধকারজগৎ প্রেক্ষাপটে রেখে তিনি ছবিতে তুলে ধরেছেন ট্যাক্সি ড্রাইভার আমির আর তার প্রেমিকা পরির ভালোবাসার গল্প! পরির চরিত্রে ছবিতে অভিনয় করছেন মিমি চক্রবর্তী!

ও দিকে, পরমব্রত সম্প্রতি বলেছেন এক সাক্ষাৎকারে- তাঁর ছবির বিষয় আদতে ফুটবল! ছবিতে এক আফ্রিকান ফুটবল খেলুড়েকে দেখা যাবে, তার নামই ‘খেলেছি আজগুবি’! অসুস্থ মায়ের চিকিৎসার জন্য সে টাকা তুলতে কলকাতায় আসে! ও দিকে, তারও কিন্তু রয়েছে অপরাধজগতের সঙ্গে সম্পর্ক!

 

View this post on Instagram

 

Mirror and I…

A post shared by Parambrata Chattopadhyay (@parambratachattopadhyay) on

এ দিকে, আজগুবিকে নিতে যাদের বিমানবন্দরে আসার কথা, তারা না এলে খেলুড়ের সঙ্গে মোলাকাত হয় ট্যাক্সি ড্রাইভার রাজু আর সাংবাদিক বনির! এর পরে চলতে থাকে টানাপোড়েন- শহরের দুই জাঁদরেল ফুটবল ক্লাব নতুন বাগান আর ইয়ং বেঙ্গলের মধ্যে কে দলে টানবে আজগুবিকে! ছবিতে বনির চরিত্রে অভিনয় করবেন ঋতাভরী চক্রবর্তী!

ভালো কথা! শুধু দুই ছবিতেই ট্যাক্সি ড্রাইভার আর অপরাধ জগতের বিষয়টা কী ভাবে এক হয়ে গেল বলুন তো? আজগুবি চিত্রনাট্যের খেলায় কাকতালীয় মিল? আপনার কী মনে হয়?

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here