ওয়েবডেস্ক: দেশ বলছে, এ দ্বিচারিতার সাফ উদাহরণ! যে পহলাজ নিহালনি সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন বা সিবিএফসি-র অধিকর্তা হিসেবে এক সময়ে নির্বিবাদে কাঁচি চালিয়েছেন অন্যের ছবির যৌন প্রসঙ্গের সংলাপে, সেই তিনিই এখন বোর্ড থেকে সরে আসার পর অবাধে নিজের ছবিতে অশ্লীলতা বিক্রি করছেন! খবর মোতাবেকে, গোবিন্দাকে নিয়ে তৈরি তাঁর ‘রঙ্গিলা রাজা’ ছবির ২০টি সংলাপে কাঁচি চালিয়েছেন বর্তমান সিবিএফসি-কর্তা প্রসূন জোশী! পাশাপাশি, বোর্ড ছবি নিয়ে মামলাও ঠুকেছে বম্বে হাই কোর্টে!

আরও পড়ুন: আমায় ‘সংস্কারাচ্ছন্ন খলনায়ক’ বলে প্রচার করেছেন মন্ত্রী রাজ্যবর্ধন: পহলাজ

“নারীবিদ্বেষ যখন ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে সমাজে, যখন রোজ ধর্ষণের ঘটনা খবরে জায়গা দখল করে থাকে, তখন নিহালনির নিজের কর্তব্য সম্পর্কে সচেতন হওয়া উচিত! কিন্তু উনি ‘রঙ্গিলা রাজা’ ছবিতে ধর্ষণের পক্ষে যুক্তি পেশ করেছেন, মেয়েদেরও তুলে ধরেছেন মুখরোচক খাবার হিসেবে”, মামলার আবেদনে আপত্তির কারণ স্পষ্ট করেছে সিবিএফসি।

কিন্তু নিহালনি নিজের যুক্তিতে অনড়! তাঁর ছবিতে পুরুষরা মহিলাদের ‘কড়ক গেভর’ (কড়া ঘি-ঢালা মিষ্টি) বলে অভিহিত করেছে, গোবিন্দাকে ধর্ষণ করে ওঠার পরে বলতে শোনা গিয়েছে- ‘তু মুঝে অ্যায়সা স্বাদিষ্ট খানা খিলা চুকি হ্যায়’-এর মতো আপত্তিকর সংলাপ! ও দিকে নিহালনির বক্তব্য- এ সবই তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র!

“নানা ছবিতে ‘ফাক’, ‘শিট’ শব্দগুলো ব্যবহার হয়! ‘স্ত্রী’ ছবিতে তো হস্তমৈথুনের প্রসঙ্গে কথাবার্তা হয়েছে! তার চেয়ে আমার ছবি কি পরিশীলিত নয়”, দাবি নিহালনির! দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত মামলা কোথায় গিয়ে ঠেকে!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here