ওয়েবডেস্ক: যখন প্রথম বলিউডের কাস্টিং কাউচ নিয়ে নানা কথা উঠতে শুরু করে, সে সময়ে এক বিস্ফোরক বিবৃতি দিয়েছিলেন বলিউডের বর্ষীয়ান কোরিওগ্রাফার সরোজ খান! এ সেই সময়, যখন সারা দেশ উত্তাল হয়ে রয়েছে কাথুয়া আর উন্নাওয়ের নাবালিকা ধর্ষণ এবং হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে। তাঁর বিবৃতিতে সাফ জানিয়েছিলেন সরোজ- বলিউড আর যাই করুক না কেন, খেতে-পরতে দেয়, ধর্ষণ করে দেহ মাঠে ফেলে রেখে দেয় না! চাইলে সরোজের সেই বিবৃতি সরাসরি পড়ে নিতে পারেন নীচের লিঙ্কে ক্লিক করে!

আরও পড়ুন: খাওয়া-পরা দেয়, ধর্ষণ করে দেহ ফেলে না: বলিউডের কাস্টিং কাউচের পক্ষে সরোজ খান

 

View this post on Instagram

 

A post shared by GULZAR (@gulzar.official) on

আশ্চর্যের ব্যাপার, সম্প্রতি বলিউডের বর্ষীয়ান পরিচালক তথা গুলজারের মুখেও এক অনুষ্ঠানে শোনা গেল প্রায় এ রকমই বক্তব্য! #MeToo আন্দোলন নিয়ে প্রশ্ন করা হলে জানালেন তিনি- “সিনেমাকে কেন বাইবেল ভাবছেন বলুন তো? সিনেমা সমাজেরই দর্পণ, সমাজে যা হয়, তা সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতেও হচ্ছে! তাও তো সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি আপনাকে ৪ বা ৮ বছরের বাচ্চা মেয়ের ধর্ষণের ঘটনা দেখার হাত থেকে বিরতি দিয়েছে, সমাজ তো দিচ্ছে না!”

 

View this post on Instagram

 

Interview last friday.Wardrobe by @themissdesignercollection

A post shared by Tanushree Dutta (@iamtanushreeduttaofficial) on

অন্য দিকে, বলিউডের প্রথিতযশাদের অনেকের নামই এক এক করে উঠে আসছে প্রকাশ্যে। সম্প্রতি যে তালিকায় নাম যোগ হয়েছে সুভাষ ঘাই, সাজিদ খানের মতো পরিচালক এবং পীযূষ মিশ্রর মতো গীতিকারের নামও। পীযূষ আর সাজিদ জোর করে মেয়েদের গায়ে হাত দেন এই অভিযোগ উঠেই চলেছে! আর ঘাইকে নিয়ে অভিযোগ বেশ গুরুতর- তিনি না কি ড্রাগ খাইয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেছেন মহিলাদের! ঘাই এই বিবৃতি অভিযোগকারিণীকে আদালতে প্রমাণ করার হুমকি ছুড়েই আপাতত ক্ষান্ত রয়েছেন। ও দিকে, তনুশ্রী দত্তর লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে থানায় নানা পটেকরের বিরুদ্ধে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন