ওয়েবডেস্ক: কানাঘুষোয় শোনা যায়, রণবীর কাপুরের সঙ্গে না কি ঋষি কাপুরের সম্পর্ক খুব একটা ভালো নয়। কেন না, খুব ছোটো থেকেই রণবীর মায়ের আদরের ছেলে, তাই বাবার সঙ্গে একটা দূরত্ব থেকেই গিয়েছে তাঁর জীবনে। তা বলে এমনটাও নয় যে বাবা আর ছেলে দেখতে পারেন না পরস্পরকে!

যদিও প্রকাশ্যে ছেলেকে নিয়ে যা সব বলেন ঋষি, তা থেকে এমন ধারণা জন্মাতেই পারে শ্রোতাদের মনে। সে ক্ষেত্রে যা কিছু দোষ, দিতে হবে ঋষির ঠোঁটকাটা স্বভাবকে। ছেলের প্রতি তাঁর স্নেহ নেই, সেটা খুব একটা জোর দিয়ে বলা যাবে না।

rishi kapoor and ranbir kapoor

“ছবি ফ্লপ করলে রণবীরের দাঁড়ানোর মতো অবস্থা বা জায়গা- কোনোটাই থাকে না”, বেশ জোর দিয়েই অবশ্য এ কথা বলেছেন সম্প্রতি ঋষি। তা, খামোখা কেন এ রকম একটা মন্তব্য করতে গেলেন তিনি?

আসলে এ সবই রাজকুমার হিরানি পরিচালিত সঞ্জয় দত্তের বায়োপিক ‘সঞ্জু’-র টিজার বেরনোর প্রতিক্রিয়া। ছেলের এই ছবির টিজার দেখে সত্যি বলতে কী বেশ মুগ্ধই হয়েছেন ঋষি। আর তা জানাতে কসুরও করছেন না।
“রণবীর ছবির একেকটা অংশের জন্য যে ভাবে খেটেছে, তা অকল্পনীয়। সাত সপ্তাহে ওজন বাড়িয়েছে, এই চুল বড়ো করল তো এই ছোটো করে ছেঁটে ফেলল! পাশাপাশি গলার স্বর বদলে ফেলা, শারীরিক ভঙ্গি পালটে নেওয়া- এগুলো তো আছেই! আমি গর্বিত যে ছেলের মধ্যে সিনেমার প্রতি ভালোবাসাটা চাড়িয়ে দিতে পেরেছি”, বলছেন ঋষি।

rishi kapoor and ranbir kapoor

এর ঠিক পরেই তিনি মুখ খুলেছেন রণবীরের ছবি বাছাই এবং কাজ করার ধরন নিয়ে। “রণবীর এই সময়ের অন্য নায়কদের মতো হাতে চার-পাঁচটা ছবি রাখে না। ফলে বম্বে ভেলভেট বা জগ্গা জাসুস-এর মতো ছবি ফ্লপ করলেই সমস্যা হয়। তখন ওর দাঁড়ানোর মতো অবস্থা আর থাকে না। অনেক লড়াই করে আবার নিজেকে প্রমাণ করতে হয়, কাজ আদায় করতে হয় বলিউডে। এই ব্যাপারটা বাবা হিসাবে আমার চিন্তার কারণ। তবে পাশাপাশি আমি ওর জন্য আনন্দিতও”, জানাচ্ছেন ঋষি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here