ওয়েবডেস্ক: এইটুকু তো একটা ইন্ডাস্ট্রি! তা-ও আবার একই শহরের মধ্যে! ফলে পরস্পরকে এড়িয়ে যাওয়ার কী আর উপায় আছে!

kangana ranaut and hrithik roshan

ফলে, দেখা হতেই থাকে কঙ্গনা রানাউত আর হৃতিক রোশনের। সম্ভাবনাগুলোকে বাতিলের দলে ফেলে দেওয়া যায় না। এই তো, মাসখানেক মতো আগেই মুম্বই পুলিশের ‘উমঙ্গ’ নামের বাৎসরিক অনুষ্ঠানে দেখা হয়ে গিয়েছিল তাঁদের। দু’জনেই জানতেন, সেখানে পরস্পরের সঙ্গে দেখা হবেই! কই, তবু তো সেই অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থাকেননি কঙ্গনা, হৃতিকের কেউই!

queen

এ ছাড়াও রয়েছে আরও তিন যোগসূত্র। তার প্রথমটার খেই ধরিয়ে দেওয়ার জন্য ফিরতে হবে অতীতে। সে-ই ২০১৩ সালে! যে বছরে রাতারাতি বলিউডের ‘কুইন’-এ রূপান্তরিত হয়েছিলেন কঙ্গনা, পরিচালক বিকাশ বহলের ছবির হাত ধরে!

super 30

অদ্ভুত ব্যাপার, সেই বিকাশ বহল এ বার ‘সুপার ৩০’ নামে ছবি বানাচ্ছেন হৃতিক রোশনকে মুখ্য চরিত্রে রেখে। গণিতবিদ আনন্দ কুমারের এই বায়োপিকে হৃতিক রোশনকে কেমন দেখতে লাগবে, সেই ছবিও ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে, যা দেখে ভক্তদের ছবি মুক্তির প্রতীক্ষা বাড়ছে বই কমছে না।

manikarnika the queen of jhansi

এ বার দ্বিতীয় যোগসূত্রের প্রসঙ্গে আসা যাক কঙ্গনার শুটিং চলা বর্তমান ছবির কথায়। ‘মণিকর্ণিকা: দ্য কুইন অব ঝাঁসি’ নামের এই ছবিটি প্রথমে পরিচালনার কথা ছিল কেতন মেহতার। কিন্তু যে কোনো কারণেই হোক, শেষ পর্যন্ত আর তা হয়নি।

manikarnika the queen of jhansi

বদলে দক্ষিণী ছবির যে বিখ্যাত পরিচালক সুযোগটাকে কাজে লাগিয়ে, কঙ্গনা রানাউতকে মুখ্য চরিত্রে রেখে রানি লক্ষ্মীবাঈয়ের জীবন নিয়ে ছবি বানাচ্ছেন তাঁর নামটা কী?

krrish 3

কৃষ! আর ‘কৃষ ৩’ ছবিতে কাজ করতে গিয়েই যে পরস্পরের প্রেমে পড়েন কঙ্গনা, তা তো এখন আর অজানা কোনো কথা নয়। নায়িকার মুখের কথা ধার করে বললে- “মেরে ইশক কে কিসসে তো সারে নিউজপেপার্স মে লিখে গয়ে হ্যায়!”

super 30

তৃতীয় যোগসূত্রটাও কঙ্গনা, হৃতিক দু’জনেরই ছবি বাছাইয়ের ধরন নিয়ে। বলিউডের এই দুই বিখ্যাত তারাই এখন কাজ করছেন বায়োপিকে। হৃতিক আনন্দ কুমারের, আর কঙ্গনা ঝাঁসির রানির!

ঘটনাগুলো কি নেহাতই কাকতালীয়? না, নিয়তির মুচকি হাসি বলেই ব্যাখ্যা দিতে হবে এদের?

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here