কুমার শানুর কারণেই কি মীনাক্ষি শেষাদ্রি বলিউড ছেড়েছিলেন?

0
ছবি: বলিটকিজ থেকে

ওয়েবডেস্ক: রাতারাতি তারকা হয়ে গিয়েছিলেন। আবার আচমকাই রুপোলি পর্দা থেকে অবসর নিয়ে বলিউডের গ্ল্যামার দুনিয়ার আড়ালে চলে যান আট-নয়ের দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মীনাক্ষি শেষাদ্রি। কী কারণে, হঠাৎ চলচ্চিত্র থেকে অদৃশ্য হয়ে গেলেন তিনি। অর্থাৎ, মীনাক্ষি কেন চলচ্চিত্র ছাড়লেন? মীনাক্ষি এখন কোথায়? দেখে নেওয়া যাক সে সব প্রশ্নের উত্তর।

১৭ বছর বয়সে মিস ইন্ডিয়া খেতাব জেতার মাত্র তিন বছর পরে, তাঁর প্রথম ছবি ‘পেইন্টার বাবু’তে স্বাক্ষর করেছিলেন। জ্যাকি শ্রফের বিপরীতে সুভাষ ঘাইয়ের ‘হিরো’-তে তিনি রাতারাতি তারকা হয়ে ওঠেন। ওই ছবির পরেই একের পর এক ছবির অফার পেতে শুরু করেছিলেন। দামিনী, ঘায়েল, ঘাতক-এর মতো ব্লকবাস্টার ছবিতে কাজের পর অভিনেত্রীর পিছনে আর ফিরে তাকানোর মতো সময় ছিল না।

মীনাক্ষি বক্স অফিসে প্রচুর সাফল্য অর্জন করেছিলেন। তবে তিনি যে খ্যাতি অর্জন করেছিলেন তা তাঁর সহশিল্পীদের সঙ্গে সুষ্ঠু অংশীদারিত্ব বণ্টনের মাধ্যমেই এসেছে। অনিল কাপুর, জ্যাকি শ্রফ, পরিচালক সুভাষ ঘাই এবং গায়ক কুমার শানুর সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের কথা শোনা যায়।

কুমার শানুর সঙ্গে কী হয়েছিল?

অনেকে বলে থাকেন, কুমার শানুর সঙ্গে তাঁর যোগসূত্রটি বলিউড থেকে মীনাক্ষির প্রস্থানের অন্যতম কারণ বলেছিলেন। বিভিন্ন খবরে এমনটাও শোনা যায়, সংগীতশিল্পী কুমার শানু, যিনি সে সময় বিবাহিত ছিলেন, মীনাক্ষীকে দেখার পরই তাঁর প্রেমে পড়ে যান। তখন পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছায় যে, তিনি নিজের স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ করে মীনাক্ষীকে বিয়ে করতে প্রস্তুত ছিলেন। একটি প্রিমিয়ার শোতে একে অপরের সঙ্গে তাঁদের দেখা হয়েছিল। গায়ক না কি তাঁর প্রেমে পাগল হয়ে যান। মীনাক্ষী এই সম্পর্কের জন্য প্রস্তুত ছিলেন না এবং তাই তিনি দ্বিমত পোষণ করেছিলেন। কিন্তু কুমার শানু পরে ঘটনাক্রমে মীনাক্ষীর উপর দোষ চাপিয়েছিলেন।

১৯৯৫ সালে মীনাক্ষি বিনিয়োগ ব্যাঙ্কার হরিশ মহীশূরকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর মীনাক্ষীকে আর কখনও বড় পর্দায় দেখা যায়নি। তিনি ২৩ বছর আগে ইন্ডাস্ট্রিতে তাঁকে দেখা গিয়েছিল তবে এখনও অন্য উপায়ে বলিউডের সঙ্গে তিনি যুক্ত। এখন টেক্সাসে একটি নাচের স্কুল (চেরিশ) পরিচালনা করেন। ৫৬ বছর বয়সি মীনাক্ষি এখন সেখানেই স্বামী এবং দুই সন্তানকে নিয়ে স্থায়ী হয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.