ওয়েবডেস্ক: প্রয়াত নায়িকাকে এ খবরে টেনে আনার কারণ একটাই- বেঁচে থাকতে মেয়েদের যথাসাধ্য সহবত শেখানোর চেষ্টা করে গিয়েছিলেন শ্রীদেবী! কিন্তু বড়ো মেয়ে জাহ্নবী কাপুর যে সে সব কিছুই শেখেননি, তা প্রমাণ করে দিল এক সাম্প্রতিক জবানবন্দি।

সেই ঘটনায় আসার আগে একটু ফিরে তাকাতে হবে অতীতের দিকে। ২০১৬ সালের ঘটনা। ভাইরাল হয়েছে ছবি আর ভিডিও। জাহ্নবীর, অবশ্যই! সেখানে তাঁকে দেখা যাচ্ছে মুম্বইয়ের এক পানশালায় সেই সময়ের বয়ফ্রেন্ড শিখর পাহরিয়াকে জড়িয়ে ধরে চুমু খেতে! বেশ অন্তরঙ্গ ভাবেই, যতটা প্রকাশ্যে মানায় না!

sridevi and janhvi kapoor

জানা গিয়েছিল, এই ঘটনার পরে শ্রীদেবী না কি জাহ্নবীর বাড়ি থেকে বেরনো বন্ধ করে দিয়েছিলেন। যুক্তি ছিল তাঁর- জাহ্নবীকে স্টারকিড হওয়ার জন্যই সংযতও হতে হবে। না হলে কেবল বিতর্কই থাকবে জমাখরচের খাতায়, আর কিছুই না!

janhvi kapoor

কিন্তু সম্প্রতি ভোগ পত্রিকাকে দেওয়া জাহ্নবীর এক সাক্ষাৎকার বুঝিয়ে দিল- তিনি মায়ের শেখানো সব কিছুই ভুলে গিয়েছেন অনায়াসে! কেন না, বিতর্ক দিয়েই খ্যাতিকে ধরে রাখতে আগ্রহী এই মেয়ে! ব্যাপারটা কী?

janhvi kapoor

“আমার তিন পছন্দের অভিনেতা ধনুষ, রাজকুমার রাও আর নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি। এঁদের দেখলে আমি সব ছেড়ে পর্দায় মগ্ন হয়ে যাই”, জানিয়েছেন তিনি। আর তার পরেই জানিয়েছেন, অন্য দুই নায়ককে ছাড় দিলেও রাজকুমার রাওয়ের নজর কাড়তে ঠিক কী করেছিলেন তিনি!

rajkummar rao

“জানি না, আমার বলা উচিত হচ্ছে কি না, তবে বরেলি কি বরফি দেখার পর থেকে আমি সত্যিই চাইতাম, রাজকুমার রাওয়ের নজর কাড়তে! তাই ওঁর সোশ্যাল মিডিয়ায় সব ছবির নীচে কমেন্ট করতাম। উনিই একমাত্র ব্যক্তি যাঁর সঙ্গে আমি একটা ছবি তুলতে চেয়েছিলাম”, দাবি জাহ্নবীর!

sridevi and janhvi kapoor

আপনার কী মনে হয়, শ্রীদেবী থাকলে এ নিয়ে মুখ খুলতে সাহস পেতেন মেয়ে?

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here