ওয়েবডেস্ক: টলিপাড়া এক দিকে যেমন তাঁর কাজপাগল স্বভাবের প্রশংসা করে থাকে, এখন তেমনই সেই স্বভাবকেই দোষ দিচ্ছে স্বাস্থ্যের হঠাৎ অবনতির জন্য়। বলছে, একটানা শুটিং শিডিউলের মাঝে যদি নিজের একটু যত্ন নিতেন নায়ক, যদি খাওয়া-দাওয়াটা করতেন সময় মেনে, তা হলে হাসপাতালে ভর্তি করানোর প্রয়োজন পড়ত না।

jisshu sengupta

জানা গিয়েছে, সোমবার সকাল থেকেই অস্বাভাবিক তীব্র পেটের ব্যথায় ভুগছিলেন যিশু। “সকাল থেকেই দেখলাম, যিশুর পেটের ব্যথাটা শুরু হয়েছে। একটু বেশিই। আসলে ওর তো গ্যাসট্রাইটিসের সমস্যা আছেই! ব্যথাটা সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বেড়েই চলল। এতটাই যে ওকে আর বাড়িতে রেখে চিকিৎসা করানোর সম্ভাবনার কথা বাতিল করে দিতে হল। তখন আর দেরি না করে কাছাকাছি এক হাসপাতালে নিয়ে গেলাম ওকে। ভর্তি করানো হল সেখানে”, জানিয়েছেন নায়কের স্ত্রী নীলাঞ্জনা সেনগুপ্ত।

jisshu sengupta

নীলাঞ্জনা আরও জানিয়েছেন যে হাসপাতালে একটি দক্ষ চিকিৎসক দলের তত্ত্বাবধানে নায়কের চিকিৎসা চলছে। “প্রয়োজনীয় যা কিছু টেস্ট করানোর কথা ছিল, সেগুলো সব হয়ে গিয়েছে। পরীক্ষায় ওর গলব্লাডারে পাথর পাওয়া গিয়েছে। তবে এখনই অস্ত্রোপচার সম্ভব নয়। কেন না, ব্যথাটা রয়ে গিয়েছে। আগের চেয়ে সামান্য কম ঠিকই, তবে পুরোপুরি যায়নি। ওই ব্যথাটা যতক্ষণ থাকছে, অস্ত্রোপচার রা যাবে না বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসকরা”, বলছেন নীলাঞ্জনা।

jisshu sengupta

এবং আর সকলের মতোই তিনিও উদ্বিগ্ন নায়কের কাজ করার ধরন নিয়েই। “গত মাস ছয়েক ধরে নানা শুটিংয়ের কাজে অনবরত ও ঘোরাঘুরি করেছে। অনিয়মও করেছে নিজের স্বাস্থ্য নিয়ে”, দাবি তাঁর।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here