ওয়েবডেস্ক: কারণটা কি হৃতিক রোশন? মানে, হৃতিকের ছোটোবেলার বন্ধু হওয়ার সৌজন্যে এর আগে সোনম কে আহুজা একদা কঙ্গনা রানাউতকে নিয়ে বেশ কিছু ঘোরালো কথা বলেছিলেন। কঙ্গনা সে সময়ে কিছুই বলেননি। তার পর মাসখানেক আগেই সোনম কঙ্গনাকে তকমা দিয়েছেন বলিউডের সব চেয়ে বড়ো সমস্যাকারিণীর। তখনও কঙ্গনা চুপ করেই ছিলেন। কিন্তু ক্যুইন ছবির পরিচালক বিকাশ বহেলের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ যখন আনলেন কঙ্গনা এবং সেটা নিয়েও সোনম ফুট কাটলেন, তখন আর চুপ রইলেন না কঙ্গনা।

আরও পড়ুন: ঘাড়ে মুখ ডুবিয়ে শরীরের গন্ধ নিত, সেক্সের গল্পে টানতে চাইত বিছানায়, ‘ক্যুইন’ পরিচালকের কীর্তি ফাঁস কঙ্গনার!

খবর বলছে, ফ্যান্টম ফিল্মসের এক কর্মচারীর সঙ্গে দিনের পর দিন যে দুর্ব্যবহারটি চালিয়েছিলেন বিকাশ, সেটার প্রেক্ষিতে ওই মহিলার প্রতি সহানুভূতিই প্রকাশ করেছেন সোনম এক সাম্প্রতিক অনুষ্ঠানে। কিন্তু কঙ্গনার কথা উঠতেই সাফ জানিয়েছেন তিনি- “আসলে কী জানেন, কঙ্গনার সব কথা সব সময়ে বিশ্বাস করা কঠিন হয়ে পড়ে!” এর পরেই আর চুপ থাকেননি কঙ্গনা!

“ওহ্! সোনমের তা হলে এই অধিকার জন্মিয়েছে যে সে এক মহিলার যৌন হেনস্তার কথা বিশ্বাস করবে, অন্যেরটা উড়িয়ে দেবে, আর সেটা নিয়ে লোকে মাতামাতিও করবে! বলি আমায় বিচার করার অধিকার সোনমকে দিয়েছে কে? আমি অভিনেত্রী হিসেবে প্রশংসিত, বিশ্ব দরবারে নানা অনুষ্ঠানে আমি আমার দেশ আর যুবসমাজকে নিয়ে নানা বক্তব্যও রেখেছি। সোনম তো অভিনেত্রী হিসেবে দুর্বল বটেই, তায় বাগ্মী হিসেবেও কোনো সুনাম নেই। সব চেয়ে বড়ো কথা, আমি যা করেছি নিজের প্রতিভায়, ওর মতো বাবার খ্যাতি কুড়িয়ে নয়”, জানিয়েছেন কঙ্গনা! দেখা যাক, সোনম এ বার কী বলেন!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন