স্পষ্টবক্তা হিসেবে সবসময় পরিচিত নাম কঙ্গনা রানাওয়াত। আগামীদিনে তিনি রাজনীতিতে আসতে পারেন বলে মনে করছেন অনেকেই। বর্তমানে কঙ্গনা চলচ্চিত্রে সক্রিয় এবং অভিনয়ের পাশাপাশি লেখালেখি, পরিচালনা ও প্রযোজনা করছেন। সবসময় রাজনৈতিক ক্ষেত্রে তাঁকে মন্তব্য করতে দেখা গিয়েছে। কিন্তু করোনা আবহের আগে পর্যন্ত অভিনেত্রী স্পষ্ট জানিয়েছিলেন, রাজনীতিতে তিনি আসবেন না।

করোনা আবহের পর পরিস্থিতি অনেকটাই বদলেছে। এখন আগের থেকেও অনেক বেশি রাজনৈতিক মন্তব্য করতে দেখা যায় তাঁকে।
স্বজনপ্রীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার কঙ্গনা বলেছিলেন যে আমি বুঝতে পারছি না কেন আমাকে রাজনীতিবিদ হতে হবে। রাজনীতিতে যোগ দেওয়া নিয়ে তাঁর মন্তব্য,রাজনীতিতে যাওয়া মানেই শুধু একটি রাজনৈতিক দলের স্ট্যাম্প আপনার কপালে লেগে থাকবে আর কিছু নয়।
জনগণের কাছে তাঁর প্রশ্ন আজ এমন কী আছে যা আমার নেই এবং রাজনীতিতে যোগ দিয়ে তা পাব।

চলতি বছরে বছর অক্টোবরে মুক্তি পাওয়ার কথা তার ছবি তেজস। নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীকে তার প্রোডাকশন হাউসের টিকু ওয়েডস শেরু-তে দেখা যাবে। কঙ্গনা সীতা: দ্য ইনকারনেশন এবং পরিচালক আর বাল্কির পরবর্তী ছবির জন্যও প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

আরও পড়তে পারেন :

তরুণ মজুমদারের প্রয়াণে বাংলার সংস্কৃতিজগৎ শোকাচ্ছন্ন, মুখ্যমন্ত্রী বললেন অপূরণীয় ক্ষতি

দেশের জন্য নিজের স্বামীকেও ছেড়ে দিয়েছিলেন এই অভিনেত্রী।

গোলাপী রঙের মিনি ড্রেসে আবেদনময়ী আলিয়া

এক অনন্য পরিচালক তরুণ মদুমদার

একটি সিনেমার পর নিজের পারিশ্রমিক বাড়াতেন এই অভিনেতা

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন