ওয়েবডেস্ক: তৈরি করা হোক বা না হোক, সঞ্জয় লীলা বনশালির ‘পদ্মাবত’ আর কৃষের ‘মণিকর্ণিকা: দ্য কুইন অব ঝাঁসি’ নিয়ে একটা তুলনা এসেই যাচ্ছে। দু’টো ছবিই ঐতিহাসিক বলে এবং দু’টো ছবিই রাজস্থানের বিশেষ দুই রক্ষণশীল গোষ্ঠীর অপ্রসন্নতার কারণ হয়েছে বলে! ‘পদ্মাবত’-এর ক্ষেত্রে তা যেমন শ্রী রাজপুত কর্নি সেনা, তেমনই ‘মণিকর্ণিকা’-র ক্ষেত্রে প্রতিবাদ এসেছে সর্ব ব্রাহ্মণ মহাসভার তরফে।

যা-ই হোক, এ সব মিল বাদ দিলেও সাধারণ দর্শক একটা ব্যাপার জানতে খুবই আগ্রহী – জাঁকজমকে ‘মণিকর্ণিকা’ কি টেক্কা দিতে পারবে ‘পদ্মাবত’-কে?

manikarnika

এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়া খুব একটা সহজ হবে না। কেন না, বনশালি বলিউডের সেরা ঐতিহাসিক ছবি নির্মাতাদের তালিকায় এমনি এমনি নাম তুলে ফেলেননি। চরিত্র এবং সময়ের সঙ্গে প্রাসঙ্গিক হোক বা না হোক, তাঁর ছবির প্রতিটি চরিত্র আপাদমস্তক পোশাকে-অলঙ্কারে ধারণ করে থাকে নান্দনিকতা। সেই জায়গাটা কি ‘মণিকর্ণিকা’ নিতে পারবে?

jodha akbar

ইতিমধ্যে ‘মণিকর্ণিকা’ ছবির শুটিংয়ের যে কয়েকটি স্থিরচিত্র প্রকাশ্যে এসেছে, তাতে ঝাঁসির রানিকে দেখা গিয়েছে দুগ্ধধবল সাদা পোশাকে যা রাজস্থানি পুরুষ এবং নারীরাও যুদ্ধের সময়ে পরেন। আশুতোষ গোয়াড়িকরের ‘যোধা আকবর’ ছবিটার কথা মনে পড়ছে কি?

manikarnika

আবার, সম্প্রতি মরাঠি ধাঁচে কাছা দিয়ে শাড়ি পরা ছবির লক্ষ্মীবাঈয়ের যে দু’টি ছবি প্রকাশ্যে এল, তা দেখেও হতাশ হতে হচ্ছে! এটাও সে-ই বনশালির-ই ‘বাজিরাও মস্তানি’ ছবির ‘পিঙ্গা’ গানে নায়িকাদের সাজ-পোশাকের প্রায় হুবহু অনুকরণ। সেই ঘন লালচে বুটিদার নৌবরি শাড়ি, মাথায় লাল ফুল – তফাত নেই বললেই চলে!

bajirao mastani

দেখা যাক, এই অনুকরণ পর্ব বাদ দিয়ে সাজপোশাকের দিক থেকে কোনো চমক আনতে পারেন কি না ছবির নির্মাতারা!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here