ওয়েবডেস্ক: সীমা অতিক্রম করার প্রশ্নটি যা দেখা যাচ্ছে, এ ক্ষেত্রে অবান্তর! কেন না, ভদ্রতা, সৌজন্য, শালীনতা, সর্বোপরি মানবিকতা- কোনো সীমাই মানতে চাইছে না এই দেশের কিছু পুরুষরা! বা বলা ভালো, একটি বিশেষ রাজনৈতিক দলের মদতপুষ্ট ‘উগ্র হিন্দুত্ববাদী’ পুরুষরা!

কাথুয়ায় ৮ বছরের আসিফার গণধর্ষণের প্রতিবাদে সরব হয়েছেন বলিউডের অনেকেই! সবাই একজোট হয়ে বিচার চাইছেন আসিফার জন্য। কেউ বা সরাসরি আঙুল তুলছেন সরকারের দিকে! এর মাঝে দেখা গিয়েছিল করিনা কাপুর খানকেও। হাতে একটা প্ল্যাকার্ড নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা গিয়েছিল তাঁর একটি ছবি- যেখানে লেখা ছিল, ‘আমি হিন্দুস্তান, আমি লজ্জিত’!

সেই ছবির সূত্রেই এ বার নায়িকাকে ব্যক্তিগত আক্রমণের শিকার হতে হল। হর্ষবর্ধন নামের জনৈক উগ্র হিন্দুত্ববাদের ধ্বজাধারী কুৎসিত ভাষায় আক্রমণ করেছেন তাঁকে। সেই ব্যক্তির দাবি, হিন্দুর মেয়ে হয়ে মুসলমান ছেলেকে বিয়ে করার জন্যই তো তাঁর লজ্জা করা উচিত! তাঁর লজ্জা করা উচিত সেই মুসলমান পুরুষের সন্তান গর্ভে ধারণ করেছেন বলে এবং এক মুসলমান বর্বরের নামে ছেলের নামকরণও করেছেন বলে!

ঘটনার পর আর যে-ই হোক, চুপ করে থাকতে পারেননি ‘বীরে দি ওয়েডিং’ ছবিতে করিনার সহ-অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর। স্পষ্ট ভাষায় বলেছেন স্বরা, হর্ষবর্ধনের নিজের অস্তিত্বের জন্য লজ্জিত বোধ করা উচিত! এটাও বলতে দ্বিধা করেননি তিনি যে ভারতের রাজনীতিই এ রকম বিদ্বেষ ছড়ানোর আবহ তৈরি করছে!

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন