ওয়েবডেস্ক: নিয়ম সনাতন মতে এই- সূর্য ওঠার মুহূর্ত থেকে না খেয়ে কাটাবেন গিন্নিরা! তার পর আকাশে চাঁদ উঠলে তাকে আর কর্তাকে দেখে তবেই স্বস্তির জলপান! বিয়ের পর থেকেই এই প্রথায় করবা চৌথ পাল করে আসছেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন! আর বিয়ের পরে এটাই প্রথম করবা চৌথ সোনম কে আহুজার! ফলে, দুই পরিবারেই নেমেছে উৎসবের আবহ!

আরও পড়ুন: আরও পড়ুন: স্বামী না খেলে খেতে বসেন না, দুই সপ্তাহের বেশি আনন্দকে চোখের আড়ালও করেন না সোনম!

এই জায়গায় এসে বলিউডের নিন্দুকরা যদিও ফুট কাটতে ছাড়ছেন না! বলছেন, আনন্দ এস আহুজা তো বটেই, পাশাপাশি অভিষেক বচ্চনও বড়ো বেশি স্ত্রৈণ! ফলে, করবা চৌথে গিন্নিদের খুশি রাখতে তাঁদের উপোস না করেই বা উপায় কী!

কিন্তু নিন্দুকদের কথায় পাত্তা দেওয়ার প্রয়োজন জুনিয়র বচ্চনের নেই! টুইট তো বটেই, তার সঙ্গে আবার বিবৃতি মারফতও সাফ বলে দিয়েছেন তিনি- “যদি আমার স্বাস্থ্যের কামনায় স্ত্রী উপোস করেন, তা হলে আমারও সেটাই করে নৈতিক ভাবে তাঁর পাশে থাকা উচিত!” সব স্বামীদের আবার তা করার পরামর্শও দিয়েছেন অভিষেক!

sonam k ahuja and anand s ahuja
ছবি: হিন্দুস্তান টাইমস

আনন্দ সে সব কিছু না করলেও মেহন্দির হৃদয় এঁকেছেন হাতে, ও দিকে সোনম নিজের আর স্বামীর নামের আদ্যক্ষর সাজিয়েছেন তেলোয় মেহন্দি দিয়ে! ইনস্টাগ্রাম স্টোরি মারফত সে সবের প্রমাণ পেয়েছি সবাই!

আর হ্যাঁ, আয়ুষ্মান খুরানার নামটাও এ ক্ষেত্রে না করলেই নয়! ম্যাসেকটমির জন্য স্ত্রী তাহিরা কাশ্যপ এ বছর উপোস করছেন না! তাই তাঁর হয়ে উপোসটা করছেন আয়ুষ্মান নিজেই- হাতে মেহন্দি দিয়ে স্ত্রীর নামের আদ্যক্ষরও লিখেছেন তিনি!

এ বার চাঁদ উঠলেই হয়!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here