salman khan and katrina kaif

ওয়েবডেস্ক: সলমন খান এবং ক্যাটরিনা কাইফকে আবার এক সঙ্গে দেখা যাবে ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ ছবিতে। ২০১২-র ‘এক থা টাইগার’-এর সিকোয়েল বলেও বর্ণনা করা হচ্ছে এই ছবিকে। যা মুক্তি পাবে আগামী ২২ ডিসেম্বর।

আজ একটি ম্যাগাজিনে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে ক্যাটরিনা তাঁর কাছে সলমনের গুরুত্ব বা ভূমিকা কতটা বা কী, সে কথা বিশদে জানান। তিনি জোর গলায় বলেন, ‘আমি জানি না জীবন আমাকে ভবিষ্যতে কোথায় নিয়ে যাবে। কিন্তু আমি মনে করি সলমনের সঙ্গে কাজ করা মানে একটা পরিবার হয়ে ওঠা।‘

বলিউডে ক্যাটরিনার বর্তমান অবস্থান নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই। তিনি এখন যে উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছেন, তা কিন্তু এক দিনে গড়ে ওঠেনি। তাঁর এই উত্থানের শুরু হয়েছিল কিছুটা সলমনের সৌজন্যেই। বলিউডের হার্টথ্রব সম্ভবত সেই অবদানের কথা ভুলতে চান না। হতে পারে এখন তিনি বড়ো হাউসের বিগ প্রডাকশনে কাজের সুযোগ অহরহ পেয়ে থাকেন। তবে তিনি এ সব নিয়ে ততটা ভাবিত নন। ভিত যদি শক্ত না হতো, যদি মধ্যে দক্ষতা না থাকত তা হলে আজ মহীরুহে পরিণত হওয়া সম্ভব হতো না।

কোনো কোনো অভিনেত্রী মনে করেন, তিন খানের সঙ্গে অভিনয় করলেই তাঁদের বরাত খুলে যাবে। কিন্তু নিজের মধ্যে যদি সেই প্রতিভা এবং সৃজনশীলতা না থাকে তা হলে কিস্যুটি হবে না। নিজের কর্মজীবনে সব সময়ই তিনি এই সৃজনশীলতাকে মিলিয়ে চলতে পছন্দ করেন।

ক্যাটরিনা মনে করেন, এ মুহূর্তে বলিউডে আমির খান সব থেকে শক্তিশালী একজন সৃজনশীল অভিনেতা। অন্য দিকে শাহরুখ ও সলমন সব থেকে প্রতিভাধর অভিনেতা। অর্থাৎ সলমনের সঙ্গে শাহরুখকে জুড়ে দিয়ে তিনি আমিরের সঙ্গে লড়াইয়ে রাখছেন। ফলে তিনি এই তিন সৃজনশীল এবং প্রতিভাধর খানের সঙ্গে কাজ করে অনেক কিছুই অজানা বিষয় শিখতে পেরেছেন বলে তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞ। এমনকী ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ ছবিতে সলমনের সঙ্গে তাঁর অভিনীত চরিত্রের বহু অমিল থাকলেও সেটাকে ফুটিয়ে তোলার পুরো চেষ্টা করেছেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here