পর্দায় আসছে জীবনানন্দের দাম্পত্যের কাহিনী ‘ঝরা পালক’, কবিপত্নীর চরিত্রে অভিনয় কতটা চ্যালেঞ্জিং বলল জয়া

0

এবার বড় পর্দায় আসতে চলেছে কবি জীবনানন্দ দাসের দাম্পত্যের কাহিনী। সায়ন্তন মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় আসছে ‘ঝরা পালক’। কবিপত্নী লাবণ্যপ্রভা দাসের ভূমিকায় রয়েছেন জয়া আহসান। জীবনানন্দর মৃত্যুর পর স্ত্রীর চিরকালীন না পাওয়ার ক্ষোভ,জীবনযন্ত্রণার অসহায়তা সমস্ত কিছু এই সংলাপের মধ্য দিয়ে ফুটে উঠেছে। ছবিতে জীবনানন্দ দাসের চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেতা ব্রাত্য বসু। আগামী ২৪ জুন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে এই ছবি।

কতটা কঠিন ছিল এরকম একটা চরিত্রে অভিনয় করা? কবি পত্নীর বিতর্কিত চরিত্রে অভিনয় করে জয়া আহসান বলেছেন,’কবি-পত্নী হওয়া বেশ কঠিন। তাও আবার জীবনানন্দ দাশের মতন কবির পত্নী। শুরুতে একটু টেনশন হয়েছিল। কিন্তু পর্দায় এই চরিত্র দেখে অনেকের ভুল ধারনা ভেঙে যাবে। কোথাও না কোথাও একজন শিল্পীর স্ত্রী হওয়া কঠিন। আর তাছাড়া ব্রাত্য তা যথেষ্ট বড় মাপের অভিনেতা। নিজের মতন করে চেষ্টা করেছি লাবণ্যপ্রভাকে ফুটিয়ে তোলা’।

পরিচালক সায়ন্তন মুখার্জি ঝরাপালক ছবিতে সিনেমাকে একটা ক্যানভাস এর মত ব্যবহার করে জীবনানন্দের জীবন,তাঁর ভাবনা, দুঃখ-কষ্ট আবেগ এবং আশপাশের মানুষজনকে আঁকার চেষ্টা করেছেন।

এই ছবির কেন্দ্রে রয়েছে কবি জীবনানন্দ দাশের দাম্পত্য জীবনের কাহিনী। লাবণ্য ও জীবনানন্দের সাংসারিক টানাপড়েনের গল্প বলা যেতে পারে। পাশাপাশি সেসময়ের সামাজিক প্রেক্ষাপট কবি মহলে জীবনানন্দ দাশের অবস্থান এবং কবির জীবনে পাওয়া ও না পাওয়ার দ্বন্দ্ব।

আরও পড়তে পারেন :

পিভি সিন্ধুর সঙ্গে অনুষ্ঠান বাড়িতে অল্লু অর্জুন, ভাইরাল ছবি

জামাইষষ্ঠীর ঠিক পরেই কলকাতায় পঙ্কজ, সৃজিতের সঙ্গে খেলেন ঝাল দিয়ে ফুচকাও

কাজলের বাবা তাঁর মেয়ের কি নাম রাখতে চেয়েছিলেন, জানেন কি?

লভলাইফ নিয়ে কী বললেন অভিনেত্রী সন্দীপ্তা?

বাঙালি অভিনেতা হিসেবে গর্ববোধ করিঃ আবির চট্টোপাধ্যায়

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন