aamir khan

ওয়েবডেস্ক: বলিউডের যে বড়োসড়ো একটা ক্ষতি হবে নায়কের এই সিদ্ধান্তে, তাতে আর সন্দেহ কী! কিন্তু, হঠাৎ কেন এ হেন এক সিদ্ধান্ত নিলেন আমির খান?

সে কথায় আসার আগে এক বিতর্কে ইতি না টানলেই নয়! জানা গিয়েছে, এই সিদ্ধান্তের সঙ্গেই জড়িয়ে রয়েছে ভারতের প্রথম মহাকাশচারী রাকেশ শর্মার বায়োপিকে অভিনয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ার বিষয়টি। প্রথমে যদিও রটেছিল জোর গুজব! কানাকানি করছিল বলিউড, আমির যে রকম ভাবে চাইছেন, ততটা দরাজ ভাবে ছবির পিছনে টাকা ঢালতে নারাজ প্রযোজক সিদ্ধার্থ রায় কাপুর। সেই কারণেই না কি ছবির প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন আমির। ছবির দশা বেহাল হচ্ছে বুঝতে পেরেই সরে আসেন খুঁতখুঁতে মানুষটি।

গুজব বাড়ছে দেখে এ বার নায়ক নিজেই খোলসা করে দিয়েছেন বিষয়টি। জানিয়েছেন, শুধু রাকেশ শর্মার বায়োপিক নয়, বলিউডের কোনো ছবিতেই আর কাজ করবেন না তিনি। অবশ্য আমির-ভক্তদের এই সংবাদে মুষড়ে পড়ার কোনো কারণ নেই। খবরটা খারাপ স্রেফ বলিউডের পরিচালক-প্রযোজকদের জন্য। কেন না, বিবৃতির দ্বিতীয় পর্যায়ে স্পষ্ট করে বলছেন আমির, এই অন্তর্ধান মাত্র আগামী ১০ বছরের জন্য।

কিন্তু কেন?

খবর বলছে, এই ১০ বছরে নিজের প্রযোজনা সংস্থার কাজে মন দেবেন আমির। এই সময়সীমার প্রথম দফায় তাঁর প্রযোজনা সংস্থা থেকে মুক্তি পাবে পাঁচটি ছবি। প্রথম ছবিটি মুক্তির সময় ধার্য হয়েছে ২০১৮ সালে। এ-ও জানা গিয়েছে, এই ছবিগুলির মধ্যে কয়েকটি আমির পরিচালনাও করতে পারেন। আরও যা অবাক করার মতো খবর, এই ছবিগুলির মধ্যে বেশ কয়েকটি পরস্পরের সঙ্গে যুক্ত থাকবে। অর্থাৎ, সেই সব ছবিতে একই ভূমিকায় থাকবেন আমির।

নিজের প্রযোজনা সংস্থাকে এ ভাবে তুলে ধরার সিদ্ধান্ত মন্দ কিছু নয়। যদিও গুজব তাতে বাড়ছে বই কমছে না। আমিরের এই সিদ্ধান্ত জন্ম দিয়েছে দুই জোর গুজবের। এর মধ্যে প্রথমটা সমর্থন করছে সিদ্ধার্থ রায় কাপুরের সঙ্গে আমিরের মনোমালিন্যের বিষয়টি। মানে, নিজের ছবির বাজেটের ব্যাপারে আর অন্যের হস্তক্ষেপ বরদাস্ত করবেন না আমির।

আর দ্বিতীয়টা?

গুজব অনুযায়ী, আমিরের প্রযোজনা সংস্থা খুব সম্ভবত হাত দিচ্ছে মহাভারত তৈরির কাজে। অনেক দিন ধরেই বেশ কয়েকটি পর্বে মহাভারত নিয়ে ছবি করতে চাইছেন আমির। এই মর্মে জেমস ক্যামেরনের সঙ্গে বেশ কিছু বৈঠকও হয়েছে তাঁর। তা হলে সব ক’টি ছবিতেই আমিরের একই ভূমিকায় অভিনয়ের বিষয়টিও মিলে যায়।

দেখা যাক! কী আছে আমিরের পরিকল্পনায়, ভবিষ্যতই তার উত্তর দেবে!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here