ওয়েবডেস্ক: যা দেখা গেল, ৭৪ বছরে পা দেওয়ার মুহূর্তে বেশ ভালো মেজাজে ছিলেন শর্মিলা ঠাকুর! ফলে এক সাক্ষাৎকারে যখন তাঁর কাছে বলিউডের #MeToo আন্দোলন নিয়ে বিবৃতি চাওয়া হল, অকপটেই নিজের মনের কথাটা সবার ভাগ করে নিলেন নায়িকা!

প্রশ্ন ছিল- বলিউডে যৌন হেনস্তা বা নারীদের শিকার ভাবার মানসিকতা তো আর নতুন কিছু নয়। তা হলে সেই ইন্ডাস্ট্রিতে থেকে কী ভাবে স্বাতন্ত্র্য রক্ষা করতে সমর্থ হয়েছিলেন শর্মিলা! “খুব সম্ভবত আমার পারিবারিক মর্যাদার কারণে! সেটা ভেবেই আমার ধারণা, আমার সঙ্গে কেউ কিছু করার সাহস পাননি”, বিবৃতি নায়িকার!

 

View this post on Instagram

 

Wishing the veteran actress #SharmilaTagore a very happy birthday 🎂🙏

A post shared by Anoop Kumar Singh (@iamanoopkumarsingh) on

আরও পড়ুন: সয়ে নাও, আমাদের সঙ্গেও হয়েছে, আমরা কী মুখ খুলেছি: #MeToo প্রেক্ষিতে বিস্ফোরক জুহি

পরে অবশ্য এটাও বলতে ভোলেননি তিনি- বলিউড ভালো করেই বুঝে গিয়েছিল যে কাজ তাঁর একমাত্র জগৎ নয়, কাজের উপরে তিনি নির্ভরশীলও নন! অতএব, বাধ্য হয়ে অনেকে যা মেনে নেন, তা শর্মিলা মেনে নেবেন না!

“আমি আসলে কোনো দিনই খুব একটা কেরিয়ার নিয়ে মাথা ঘামাইনি। কাজ এসেছে, করে গিয়েছি- এই পর্যন্তই! সবার শেষে আমার পরিবারই ছিল আমার আসল জায়গা! সেই জন্যেই বোধহয় কোনো কিছুর আঁচ গায়ে লাগেনি”, দাবি তাঁর!

পাশাপাশি, নানা সমস্যা থেকে কী ভাবে খাস হেয়ার-স্টাইলিস্ট সতর্ক করে দিতেন তাঁকে, সে কথাটাও লুকিয়ে রাখেননি শর্মিলা! “নীনা নামে আমার যে খাস হেয়ার-স্টাইলিস্ট ছিল, সে ছিল আমার ব্যাপারে খুবই কড়া! সব সময় আমায় নানা উপদেশ দিত! ওর কাছ থেকেও অনেকের ব্যাপারে অনেক কিছু জানতে পেরে অবাঞ্ছিত পরিস্থিতি এড়িয়ে চলতাম”, বলছেন নায়িকা!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here