ওয়েবডেস্ক : নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু বলেছিলেন, “শুধু মাত্র রক্ত দিয়েই স্বাধীনতা আনা যায়। তোমরা আমাকে রক্ত দাও, আমি তোমাদের স্বাধীনতা দেব”। সেই স্বাধীনতার ৭৩তম বর্ষ পূর্তির পুণ্য লগ্ন। ভারতবাসীর কাছে উৎসবের দিন। সেই স্বাধীনতা দিবসে বাড়িতেই ছুটি কাটাতে চান পরিবারের সকলের সঙ্গে আনন্দ করে? সবাই মিলে ঘুড়ি ওড়ানো, এক সঙ্গে ভালোমন্দ খাওয়া ছাড়াও আরও একটি কাজ করা যেতে পারে। তা হলে সিনেমা দেখা। বাড়িতেই দেখতে পারেন এই পাঁচটি সিনেমা।

নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোস : দ্য ফরগটেন হিরো

দেশ নায়ক নেতাজি বললে যাঁর কথা সবার আগে মনে পড়ে তিনি হলেন নেতাজি। দেশ স্বাধীন করতে তাঁর অবদান অবর্ণনীয়। তাঁরই জীবনী নিয়ে তৈরি ছবি ‘নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোস : দ্য ফরগটেন হিরো’। নেতাজির ভূমিকায় অভিনয় করেছেন, সচিন খেড়েকার। ছবিতে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের পদ কী ভাবে ছেড়ে দিয়েছিলেন, কী ভাবে ইউরোপে গিয়ে হিটলারের সঙ্গে দেখা করে তাঁকে সাহায্যের কথা বলেছিলেন, জাপানের সহযোগিতায় কী ভাবে ভারতীয় জাতীয় সেনাবাহিনী গড়ে তুলেছিলেন ইত্যাদি ঘটনাকে তুলে ধরা হয়েছে। ছবিটি মুক্তি পেয়েছিল ২০০৪ সালে।

গান্ধী

অহিংস আন্দোলন, আইন অমান্য আন্দোলন ইত্যাদির দ্বারা স্বাধীনতা সংগ্রামকে যিনি এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন, সেই মহাত্মা গান্ধীর জীবনী অবলম্বনে ছবি ‘গান্ধী’। ছবিতে অভিনয় বেন কিংসলে। ছবিটি মুক্তি পেয়েছিল ১৯৮২ সালে। ছবিতে ১৮৯৩ শাল থেকে ১৯৪৮ সাল পর্যন্ত তাঁর জীবনকালকে তুলে ধরা হয়েছে।

মঙ্গল পাণ্ডে : দ্য রাইজিং

১৮৫৭ সালের ঘটনা এই ছবি তুলে ধরা হয়েছে। সেই সময় নতুন এক ধরনের কার্তুজ সেনাবাহিনীতে ব্যবহারের জন্য আনা হয়েছিল। তা শুকর ও গরুর চর্বি দিয়ে বানানো হতো। তা হিন্দুদের জন্য ব্যবহার করা অসুবিধাজনক ছিল। এই ঘটনা সেনাবাহিনীর মধ্যে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ তৈরি করেছিল। যা বিদ্রোহের রূপ নিয়েছিল। এই বিদ্রোহের নায়ক ছিলেন মঙ্গল পাণ্ডে। ছবিতে আমির খান মঙ্গল পাণ্ডের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।

সর্দার

সর্দার বল্লভ ভাই প্যাটেলের জীবন নিয়ে ছবি ‘সর্দার’। তিনি ছিলেন ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের নেতা। গুজরাতের সত্যাগ্রহ আন্দোলন পরিচালনা করেছিলেন তিনি। তিনি ‘আয়রন ম্যান অব ইন্ডিয়া’ নামে পরিচিত ছিলেন। ছবিতে সর্দারের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন পরেশ রাওয়াল।

বর্ডার

ভারত পাকিস্তান যুদ্ধ নিয়ে ছবি বর্ডার। একাধিক নায়ক নায়িকার অভিনয়ে ভরে উঠেছে ছবিটি। এতে যুদ্ধ ক্ষেত্রে সৈনিকদের অবদান ও তাঁদের বাড়ির মানুষদের মনের অবস্থা সুন্দর ভাবে তুলে ধরা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.