ওয়েবডেস্ক: ব্যাপারটা কি ক্রমশ ঢেঁকি স্বর্গে গিয়েও ধান ভানের জায়গায় চলে যাচ্ছে?

priya prakash varrier

নিন্দুকরা অন্তত সে কথাই বলছেন! পাশাপাশি, উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন প্রিয়া প্রকাশ বরিয়ারের শুভার্থীরা। কত গুণী মেয়ে, কিন্তু মিডিয়া কেবল তাঁর এক চোখের চাহনি নিয়েই মেতে রয়েছে! চোখ মারা ছাড়া আর কোনো কিছু দেখতেই চাইছে না তাঁর কাছ থেকে!

আসলে, মিডিয়ার সমস্যা এটাই! একবার কিছু একটা রাতারাতি জনপ্রিয় হয়ে গেলে সেই ভাবমূর্তিটাকেই বার বার ব্যবহার করে জীর্ণ করে ফেলা হয়। ততক্ষণ পর্যন্ত এই ব্যাপার চলে, যতক্ষণ না দর্শকরা বিরক্ত হয়ে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন!

প্রিয়া প্রকাশ বরিয়ারের ভাগ্যে কী আছে, তার উত্তর সময়ই দেবে! তবে আপাতত যা দেখা যাচ্ছে, তাঁর এক চোখের চাহনিতে মোটেই বিরক্ত হয়ে ওঠেনি ভারত। একঘেয়েও তা হয়ে ওঠেনি দেশের কাছে। ফলে একটা চকোলেটের বিজ্ঞাপনে যখন এই প্রতিভা নিয়ে আবির্ভূত হলেন মেয়ে, ফের দেশে শোরগোল পড়ে গেল।

তবে সত্যের খাতিরে স্বীকার করাই উচিত, ওরু আদর লাভ ছবির মাণিক্য মালারায়া পুবি গানে কয়েক সেকেন্ডে যে অনেক অভিব্যক্তি নিয়ে ধরা দিয়েছিলেন প্রিয়া, এই বিজ্ঞাপনে সে ব্যাপারটা নেই! এখানে কেবল তাঁর এক চোখের চাহনি ব্যবহার করা হয়েছে সিগনেচার মার্ক হিসাবেই!

তবে তার পরেও বিজ্ঞাপনের এই ভিডিও নিয়ে নেটদুনিয়ায় উচ্ছ্বাস কিছু কম হচ্ছে না। প্রিয়ার জনপ্রিয়তার কথা মাথায় রেখে মালয়ালম, তামিল এবং হিন্দি সমেত ৬টি ভারতীয় ভাষায় তৈরি হয়েছে বিজ্ঞাপনটি। ফলে, তা খুব সহজেই এক বিশাল সংখ্যক মানুষের কাছে তাঁদের মাতৃভাষায় তুলে ধরতে পেরেছে প্রিয়ার জাদু। পরিণামে ভিডিও যে দেওখতে দেখতে ইউটিউব-এ এক লক্ষ ভিউয়িংয়ের জায়গায় চলে যাবে, তাতেই বা আশ্চর্য কী!

ক্লিক করে দেখে নিন ভিডিওটি! বুঝতে পারবেন, তা নিয়ে টুইটারেতিরা যে প্রশংসা করছেন, তা অমূলক নয়!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন