ওয়েবডেস্ক: তখন বাংলা সাহিত্য আর সংস্কৃতির পথিকৃৎটির বয়স মাত্র ১৭ বছর! সাল ১৮৭৮! মুম্বইয়ে ড. আত্মারাম পাণ্ডুরঙ্গ তড়খড়ের বাড়িতে সাময়িক ভাবে রয়েছেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। সে বছরেই ইংলন্ড থেকে পড়াশোনা শেষে বাড়ি ফিরেছেন তড়খড় পরিবারের কন্যা অন্নপূর্ণা। পাশ্চাত্য শিক্ষা এবং সহবতে রপ্ত অন্নপূর্ণা সহজেই জয় করে নিয়েছিল রবির মন। একটি আদরনামও পায় সে রবির কাছ থেকে- নলিনী!

annapurna turkhud and rabindranath tagore
অন্নপূর্ণা তড়খড় আর রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

নলিনী আর রবির সেই প্রেমগাথা এ বার সম্পদ হতে চলেছে ভারতীয় ছায়াছবির। জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত পরিচালক উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায় রয়েছেন ছবিটির পরিচালনায়। যে ছবিতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের চরিত্রে দেখা দিতে চলেছেন সাহেব ভট্টাচার্য। আর প্রিয়াঙ্কা চোপড়া? তিনিই কি ধরা দিতে চলেছেন নলিনীর চরিত্রে?

priyanka chopra

বলাই বাহুল্য, নলিনীর চরিত্র পর্দায় ফুটিয়ে তোলার পক্ষে নায়িকার বয়স অনেকটাই বেশি! তিনি বছর পঁয়ত্রিশের, অন্য দিকে নলিনী সদ্য কুড়ির কোঠায় পা রাখা তরুণী! তা হলে?

vaidehi parshurami and saheb bhattacharya
বৈদেহী আর সাহেব

খবর বলছে, ছবিটিতে নলিনীর চরিত্রে অভিনয় করবেন মরাঠি অভিনেত্রী বৈদেহী পরশুরামী! ছবিটির নামও রাখা হয়েছে ‘নলিনী’। আর প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এই ছবির প্রযোজক। অনেক দিনই হল আঞ্চলিক ভারতীয় ছবি তাঁর অর্থানুকূল্যে সমৃদ্ধ হচ্ছে; নলিনীও জায়গা করে নিচ্ছে সেই তালিকায়।

ujjwal chatterjee

জানা গিয়েছে, বিশ্বভারতী সহজে ছবিটি তৈরির অনুমতি দেয়নি। একে তো এর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে রবীন্দ্রনাথ, তার উপরে ছবিটি তৈরিও হবে বাংলা-মরাঠি-ইংরেজি এই তিন ভাষায়! অর্থাৎ আপনা থেকেই তার দর্শক সংখ্যা এবং আদৃত হওয়ার পরিসর যাচ্ছে বেড়ে। এর সঙ্গে দুটি চুমুর দৃশ্য নিয়েও আপত্তি তুলেছিল বিশ্বভারতী। একটি অন্নপূর্ণা-রবীন্দ্রনাথের; অন্যটি অন্নপূর্ণা ও তাঁর বাগদত্তার। সেই জন্য নানা খুঁতখুঁতুনির পরে উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায়ের ছবির তিন নম্বর চিত্রনাট্যটিকে অনুমোদন দিয়েছে বিশ্বভারতী। তবে সেই চিত্রনাট্যে চুমু বাদ দিতে হল কি না, তা স্পষ্ট নয় এখনও!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here