ওয়েবডেস্ক: বলিউডে যৌন নির্যাতনের ব্যাপারে সরব হলেন অভিনেত্রী রাধিকা আপ্তে এবং ঊষা যাদব। বিবিসি-র একটি তথ্যচিত্রে এই বিষয়ে মুখ খোলেন তাঁরা। সাফ জানিয়ে দেন, কাজ হারানোর ভয়েই সব কিছু সহ্য করেই মুখ খোলার সাহস দেখান না নির্যাতিতারা।

‘বলিউড’স ডার্ক সিক্রেট’ শীর্ষক একটি তথ্যচিত্র করেছে বিবিসি। সেখানে সাংবাদিক রজনী বৈদ্যনাথনকে রাধিকা বলেছেন, “বলিউডে অনেককেই ভগবানের আখ্যা দেওয়া হয়। এরা এতটাই শক্তিশালী যে নির্যাতিতা মনে করেন তাঁরা আওয়াজ তুললেও কেউ তাঁদের কথা শুনবে না। এটাও চিন্তা থাকে যে নির্যাতিতা কিছু বললে তাঁদের কেরিয়ার শেষ হয়ে যাবে।”

অন্যদিকে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত মরাঠি অভিনেত্রী ঊষা যাদবের দাবি বলিউডের প্রভাবশালী পুরুষরা যৌন সুবিধা (sexual favours) দাবি করেন। এই প্রসঙ্গে নিজের সঙ্গে ঘটে যাওয়া একটি ঘটনার কথা বলেন ঊষা। তাঁর থেকে একজন কিছু চেয়েছিল বলে জানান ঊষা।

তাঁর কথায়, “আমি বললাম কী দেব? আমার তো টাকা নেই কোনো। আমাকে বলা হল- ‘না,না, টাকার কোনো ব্যাপারই নয়। তোমাকে একজনের সঙ্গে শুতে হবে। সেটা প্রযোজক হতে পারে নির্দেশকও হতে পারে, অথবা দু’জনের সঙ্গেও শুতে হতে পারে’।”

এই তথ্যচিত্রে একজন ২৫ বছরের উঠতি অভিনেত্রীরও সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়েছে। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক সেই অভিনেত্রী জানিয়েছেন, তাঁকে একাধিক ভাবে যৌন নির্যাতন করা হয়েছে। প্রথম কাস্টিং এজেন্টের সঙ্গে দেখা করার অভিজ্ঞতা খোলাখুলি জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, ওই ব্যক্তি শুরুতেই আমায় বলেন, অভিনেত্রী হতে যখন এসেছি, তখন আমায় যে কোনো সময় খুশি মনে সেক্স করতে রাজি থাকতে হবে। নিজের যৌনতার উদ্‌যাপন করতে হবে।

অভিনেত্রী বলেন তারপরই সে “আমার শরীরের যেখানে খুশি হাত দেয়, যেখানে খুশি চুমু খায়। আমার জামার ভেতরেও হাত ঢোকানো হয়েছিল। আমি বারণ করেছিলাম। তাতে আমাকে বলা হল, ‘একটা কথা শুনে নাও। এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার মতো মানসিকতা তোমার নেই’।”

আগামী শনিবার এবং রবিবার এই ডকুমেন্টারিটি দেখানো হবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here