raj shubhashree

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান: অবশেষে সম্পন্ন হল চলচিত্র তারকা রাজ চক্রবর্তী এবং শুভশ্রীর বিয়েপর্ব। কলকাতা ও বাওয়ালি রাজবাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান হলেও বর্ধমানে শুভশ্রীর বাড়িতে অনুষ্ঠান হওয়া বাকি ছিল।

শুক্রবার ছিল অষ্টমঙ্গলা। সেই উপলক্ষে বৃহস্পতিবারই বর্ধমানের বাজেপ্রতাপপুরে নিজের শ্বশুরবাড়িতে আসেন সস্ত্রীক রাজ। রাতে বর্ধমানের একটি অভিজাত রিসোর্টে আয়োজিত হয় এই সেলেব বিয়ের রিসেপশন পার্টি।

শুক্রবার সকালে শুভশ্রীর বাড়িতে একেবারে পারিবারিক রীতিনীতি মেনেই অষ্টমঙ্গলার পুজো সম্পন্ন হয়।
তবে সকলের আকর্ষণের বিষয় ছিল রাতে রিশেপসন পার্টি। বর্ধমানের নবাবহাটে সেই উপলক্ষে একটি বিলাশ বহুল রিসোর্ট সাজানো হয় রাজকীয় ঢঙে। চারিদিকের রঙিন আলোর ঝলকানিতে জমে ওঠে পার্টির মেজাজ। বিকেলেই রিসোর্টে পৌঁছে যান সবাই।

raj subhashree

রাজ-শুভশ্রী-সহ তাঁদের আত্মীয়স্বজন ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বর্ধমানের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব, প্রশাসনিক কর্তারাও। অতিথি আপ্যায়নের ব্যবস্থাও ছিলো পরিপূর্ণ। কিছুক্ষণ রিসোর্টের একটি ঘরে বিশ্রাম নেওয়ার পরে প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে রাত সাড়ে আটটায় পার্টির হলে নেমে আসেন রাজ-শুভশ্রী। বর্ধমানের মেয়ে-জামাই। শুভশ্রীর লাল বেনারসি, রাজের নীল ব্লেজার। নির্দিষ্ট নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে চলল আলাপ-সেল্ফি। আমন্ত্রিতদের উপচে পড়া ভীড় সামলানোর দায়িত্বে আনা হয় বিশেষ নিরাপত্তারক্ষী।

আলাপপরিচয় পর্বের দায়িত্বে ছিলেন শুভশ্রীর বাবা দেবু গঙ্গোপাধ্যায়। সঙ্গে তাঁর দিদি-বোন। শুভশ্রী বায়না অনুযায়ী ছিলো আতশবাজি পোড়ানোর ব্যবস্থাও। খাবারের মেনুতেও ছিলো বাঙালিয়ানা। মাছ-চিকেন-মটন-পনিরের নানা ধরনের সুস্বাদু আইটেম। ছিল নরম এবং হার্ড ড্রিঙ্কের ব্যবস্থাও।

শনিবার দুর্গাপুরের ভিরিঙ্গি মন্দিরে পুজো দিয়ে নতুন জীবন শুরু করবেন এই দুই ‘তারকা-দম্পতি ‘। ফিরে যাবেন কলকাতায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here