ওয়েবডেস্ক: চলতি বছরের এপ্রিল মাসের ঘটনা! বলিউডের কাস্টিং কাউচ নিয়ে মুখ খুলেছিলেন রাখি সাওয়ান্ত! বক্তব্যের কিছুটা ছিল প্রথামাফিকই- যৌন দুর্নীতি পৃথিবীর সব দেশে সব ক্ষেত্রেই রয়েছে, বলিউডও তার ব্যতিক্রম নয়! কিন্তু তার পরেই স্বভাবমাফিক একটি তথাকথিত বিস্ফোরক কথা বলতে ছাড়েননি তিনি! দাবি করেছিলেন রাখি- তিনি নিজেও কাস্টিং কাউচের শিকার হয়েছেন! কিন্তু প্রতিভা ছিল বলে একবারের বেশি সুযোগ দিতে হয়নি!

তো, যিনি নিজের মুখেই এই সুযোগ দেওয়ার কথাটা স্বীকার করে নিয়েছেন, তিনি এ বার নানা পটেকর সম্পর্কে তনুশ্রী দত্তার বক্তব্য নিয়ে কিছু বিচিত্র দাবি তুলেছেন! যার সারমর্ম- তনুশ্রী ডাহা মিথ্যে বলছেন!

আরও পড়ুন: নানা স্বভাবের অন্ধকার দিকটা ঢেকে রাখেন, তনুশ্রীর পরে বিবৃতি ডিম্পল কাপাডিয়ারও!

 

View this post on Instagram

 

Kise ne bhi shaanpati ki seedha danda andar samje hamaar fanwa#ranveersingh

A post shared by Rakhi Sawant Official (@rakhisawant2511) on

“আমি দুপুরে বিশ্রাম নিচ্ছিলাম বাড়িতে। হঠাৎ আমার কাছে গণেশ আচার্যর ফোন এল! কোরিওগ্রাফার জানালেন আমায় এখনই স্টুডিওয় চলে আসতে, একটা গানের দৃশ্য শুট করতে হবে! তার পরে ফোনে আমার সঙ্গে কথা বললেন নানা! জানালেন- তুমি এখনই চলে এসো, না হলে প্রযোজক আত্মহত্যা করবে! ও অনেক টাকা লগ্নি করেছে ছবির পিছনে, লোকসান হতে দেওয়া যায় না! শুনে স্টুডিওয় গিয়ে দেখলাম, তনুশ্রী বায়নাক্কা জুড়ে নিজেকে বন্ধ করে রেখেছে মেক-আপ ভ্যানের ভিতরে! ড্রাগের নেশায় বুঁদ ছিল ও, অন্যের নামে কুৎসা রটিয়ে এসির হাওয়া খেয়ে ঘুমোচ্ছিল”, দাবি রাখির!

 

View this post on Instagram

 

Will miss USA…be back soooon!!!

A post shared by Tanushree Dutta (@iamtanushreeduttaofficial) on

কথা হল, এই রাখিই কাস্টিং কাউচ নিয়ে এপ্রিল মাসের বিবৃতিতে বলেছিলেন- মেয়েদের না বলাটা শিখতে হবে, কেউ সুযোগ নিতে চাইলে তার প্রতিবাদ করতে হবে! এখন তনুশ্রী তো সেটাই করছেন, কিন্তু রাখিকে কি তাঁর প্রতি সহানুভূতি সম্পন্ন বলে মনে হচ্ছে? কী মনে হচ্ছে তাঁর এই বিবৃতি থেকে?

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন