ranbir kapoor

ওয়েবডেস্ক: অনেকেই বলে থাকেন, ছায়াছবি জীবনেরই দর্পণ! কথাটা বহু ব্যবহারে জীর্ণ ঠিকই, কিন্তু তা যেন সত্যে পরিণত হল রণবীর কাপুরের ক্ষেত্রে। ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিতে যেমন তাঁর মন নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছেন নায়িকা, বাস্তবেও তেমনটাই করলেন! অন্তত তেমনটাই সোশ্যাল মিডিয়ায় দাবি করলেন রণবীর।

আরও পড়ুন: মধুচন্দ্রিমা থেকে ফিরেই ননদের সঙ্গে খুনসুটি অনুষ্কার, আর বিরাট?

এমনিতে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে যতটা সম্ভব দূরত্ব বজায় রাখেন নায়ক। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার- কোনো মাধ্যমেই তাঁকে এখনও পর্যন্ত প্রোফাইল খুলতে দেখা যায়নি। তাহলে বিরুষ্কার বিয়ে নিয়ে প্রতিবাদ জানাতেই কি এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রোফাইল খুললেন তিনি?

ঠিক তা নয়! সম্প্রতি টুইটারে তাঁর নামের এক ফ্যান পেজ-এর হয়ে ভক্তদের সঙ্গে চ্যাট করতে বসেছিলেন রণবীর। নায়ককে হাতের নাগালে পেয়ে অনেকেই তাঁকে বিরুষ্কার বিয়ের প্রসঙ্গ তুলে বিরক্ত করতে ছাড়েননি। সবারই কৌতূহল ছিল মোটামুটি একরকম- রণবীর কি আগে থেকেই অনুষ্কা শর্মা আর বিরাট কোহলির বিয়ের ব্যাপারটা জানতেন? কেন না, ভালো বন্ধু বলে দু’জনের পরিচিতি আছে বলিউডে।

প্রথমটায় এই প্রশ্নের উত্তরে রণবীরের স্বীকারোক্তি ছিল প্রথামাফিক। “খবরটা জেনে আমি প্রথমটায় দুঃখই পেয়েছিলাম, কেন না খবরটা আগে থেকে আমায় জানানো হয়নি। তবে একই সঙ্গে আমি খুব খুশিও! অনুষ্কাকে এত সুন্দর আর হাসিখুশি এর আগে কোনো দিন দেখিনি যে”, জবানবন্দি নায়কের।

এর কিছু পরেই এসেছে সেই বিতর্কিত মুহূর্ত! যখন এক ভক্ত বিরুষ্কার বিয়ে নিয়ে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলেন! উত্তরে মন আর মুখ- দুটোই অকপটে খুলতে দ্বিধা করেননি রণবীর। “হাতে মেহন্দি লাগিয়ে আমি ওঁদের বিয়েতে যাওয়ার জন্য সেজেগুজে তৈরি ছিলাম, অথচ ওঁরা আমায় ডাকলেনই না”, বক্তব্য তাঁর!

কী মনে হচ্ছে বলুন তো? ব্যাপারটা স্রেফ রসিকতা? না কি সূক্ষ্ম হলেও একটা ক্ষোভ মিশে আছে রণবীরের মনে বিরুষ্কার বিয়ে নিয়ে?

আপনার সিদ্ধান্তই এ ব্যাপারে স্বাগত!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here