ওয়েবডেস্ক: প্রথম যখন শোনা গেল স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রেক্ষাপটে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের একটি ছবি করতে রাজি হয়েছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, তখন সবাই প্রথমে ভেবেছিলেন গুমনামি বাবা নিয়ে তৈরির অপেক্ষায় থাকা ছবির কথাই! সবাই প্রত্যাশ্যা করেছিলেন- নেতাজি-রহস্য নিয়ে বোনা চিত্রনাট্যে এক সঙ্গে কাজ করতে চলেছেন ঋতুপর্ণা আর প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। আপাতত কিন্তু খবর বলছে- সৃজিত কাজ করবেন স্বাধীনতা সংগ্রামী বীণা দাসের জীবন নিয়ে, সেই বায়োপিকেই ঋতুপর্ণা ধরা দেবেন অগ্নিকন্যার ভূমিকায়।

bina das
ছবি: উইকিপিডিয়া

আরও পড়ুন: ভাঙছেন নীরবতা; শারীরিক-মানসিক অত্যাচার নিয়ে মুখ খুলছেন ঋতুপর্ণা

কৃষ্ণনগরে ১৯১১ সালে জন্ম নেওয়া বীণা ব্রিটিশ বিরোধী সশস্ত্র বিপ্লবের নেত্রী ছিলেন, এবং ১৯৩২ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় এর সমাবর্তনে বাংলার ব্রিটিশ গভর্নর স্ট্যানলি জ্যাকসনের উপর পিস্তল দিয়ে গুলি চালান। পরের নয়টা বছর তাঁর কেটেছিল জেলে। ১৯৪১ থেকে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ কলকাতার কংগ্রেসের সম্পাদিকা এবং ১৯৪৬ থেকে ১৯৫১ সাল পর্যন্ত তিনি পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার সদস্য ছিলেন তিনি। যদিও তাঁর মৃত্যু মর্মান্তিক- ১৯৮৬ সালের ২৬ ডিসেম্বর হৃষীকেশে সহায়সম্বলহীন হয়ে পথপ্রান্তে মৃত্যুবরণ করেন এই অগ্নিকন্যা!

 

View this post on Instagram

 

Happiness is something, which is all within yourself. 🙂

A post shared by Rituparna Sengupta (@rituparnaspeaks) on

আশ্চর্য ব্যাপার, এই ছবির চিত্রনাট্য নিজে লিখছেন না সৃজিত! তিনি এই দায়িত্ব দিয়েছেন টলিউডের প্রায় নতুন পরিচালক পাভেলকে। এক যে ছিল রাজা-র চিত্রনাট্যের গাফিলতি নিয়ে যে সমালোচনা হয়েছে, পরের পিরিয়ডিক্যালে তা এড়িয়ে যাওয়ার জন্যই কি?

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here