ঘটনা ঘটছে তার নিয়মে। সেই শব্দ শুনছেন দর্শকরা। পাশাপাশি অন্য এক শব্দ সেই শব্দকে ছাপিয়ে উঠছে। দৃশ্যের এক ভিন্ন মাত্রা তৈরি করছে। ঋত্বিক ঘটকের সিনেমায় এমন উদাহরণ আমরা বহু দেখেছি। শুধু ঋত্বিকই নয়, আরও অনেকেই সে সময় তাঁদের ছবিতে ব্যবহার করেছেন এই কৌশল। সিনেমার পর্দা পেরিয়ে এই কৌশল চলে এসেছিল অন্য শিল্পেও। রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী দেবব্রত বিশ্বাস তাঁর গানেও ব্যবহার করেছেন এই পদ্ধতি। কিন্ত বর্তমানে সেই কৌশলের ব্যবহার আর দেখা যায় না।

এই সনোরাস এনভেলাপ বা ধ্বনির লেফাফা-র ব্যবহার নিয়ে বুধবার এক সেমিনার আয়োজন করা হয়েছিল নেতাজিনগর কলেজের সাংবাদিকতা ও গণজ্ঞাপন বিভাগ এবং নেতাজিনগর কলেজ ফিল্ম ক্লাবের উদ্যোগে। প্রধান বক্তা ছিলেন বিশিষ্ট চলচ্চিত্র সমালোচক ও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের (ফিল্ম স্টাডিজ) অধ্যাপক সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়। ছিলেন নেতাজি নগর কলেজের সাংবাদিকতা ও গনজ্ঞাপণ বিভাগের প্রধান শাশ্বত বন্দ্যোপাধ্যায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here