ওয়েবডেস্ক: গত প্রায় সাড়ে তিন বছর ধরেই কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে লাগাতার তোপ দেগে চলেছেন শত্রুঘ্ন সিনহা। তবুও তিনি দল ছাড়েননি। উল্টো দিকে বিজেপি-ও তাঁকে বহিষ্কার করেনি। সেই সুযোগের সদ্ব্যবহার করেই ক্রমশ বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক তৈরি করে নিয়েছেন তিনি। এক দিকে যেমন তিনি বিহারে বিজেপির বিরোধী দল লালুপ্রসাদ যাদবের আরজেডির সঙ্গে সদ্ভাব বজায় রেখে চলেছেন, তেমনই অন্য দিকে তিনি কেন্দ্রের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসেরও প্রিয়পাত্র হয়ে উঠেছেন।

 

View this post on Instagram

 

Sonakshi with her family at the #DeepVeer reception 🌟💛 @aslisona #sonakshisinha #poonamsinha #shatrughansinha

A post shared by Sonakshi Sinha FC (@sonakshilovefns) on

আরও পড়ুন: ক্রিমিনাল কেস, হাইকোর্টের রায়ে সাময়িক স্বস্তিতে সোনাক্ষী সিনহা, পিছিয়ে গেল গ্রেফতারি

এ বারের লোকসভা ভোটে তাঁর নিজের কেন্দ্র পটনা সাহিব থেকে যে তিনি বিজেপির টিকিট পাচ্ছেন না, সেটাও জলের মতো স্পষ্ট ছিল তাঁর কাছে। কিন্তু নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে আসার কোনো লক্ষণই ফুটে ওঠেনি তাঁর গতিপ্রকৃতিতে। উল্টে তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, পরিস্থিতি বদলে গেলেও স্থান বদল হবে না। অর্থাৎ, গত ২০০৯ এবং ২০১৪ সালের লোকসভা ভোটে তিনি যে পটনা সাহিব থেকে জিতে সংসদে গিয়েছিলেন, সেখানেই প্রার্থী হচ্ছেন এ বারও। কিন্তু কোন দলের হয়ে, সেটাই যা ছিল অস্পষ্ট। যদিও এখন খবর- তাঁর কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার পরিকল্পনা চূড়ান্ত। আগামী ৬ এপ্রিল তিনি আনুষ্ঠানিক ভাবে কংগ্রেস যোগ দেবেন।

 

View this post on Instagram

 

Daddy’s girl ❤ #sonakshisinha #shatrughansinha

A post shared by Sonakshi Sinha FC (@sonakshilovefns) on

সম্প্রতি বাবার এই দলবদল নিয়ে মুখ খুললেন সোনাক্ষী সিনহা। শো-বিজনেসের সঙ্গে জড়িত একটি অনুষ্ঠানে তিনি হাজিরা দিলে শত্রুঘ্নর দলবদলের বিষয়টি তুলে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানতে চান সাংবাদিকরা। “বাবার আরও আগেই দল ছাড়া উচিত ছিল। বিজেপি ওঁকে যোগ্য সম্মান কোনো দিনই দেয়নি”, সংক্ষেপে দলকে তুলোধোনা করেছেন নায়িকা!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.