ওয়েবডেস্ক: সিক্সথ সেন্স! অথবা নিখাদ টেলিপ্যাথি! এই দু’টো ব্যাপার বাদ দিলে অমিতাভ বচ্চন যে আগে থেকেই জানতে পেরেছিলেন শ্রীদেবী আর পৃথিবীতে থাকবেন না- তার একটাই বাস্তবসম্মত ব্যাখ্যা হতে পারে! আর সেটা হল- নায়িকার প্রয়াণের খবরটা বলিউডের শীর্ষ স্থানীয় এই অভিনেতা আগে থেকেই পেয়েছিলেন!

রবিবার রাত ১টা ১৫ মিনিটে সোশ্যাল মিডিয়াকে আলোড়িত করে তোলে অমিতাভ বচ্চনের হিন্দিতে লেখা একটি টুইট- ‘না জানে কিঁউ, এক অজিব সি ঘবড়াহট হো রহি হ্যায়!’

english vinglish

তার পরে ভোরের আলো ফুটতে না ফুটতেই পাওয়া গেল শ্রীদেবীর প্রয়াণ সংবাদ! স্বাভাবিক ভাবেই এই দুইয়ের যোগসূত্র স্তম্ভিত করে তুলেছে দেশকে।

আরও পড়ুন : দুনিয়া ছাড়লেন হাওয়া হাওয়াই, ৫৪ বছর বয়সেই প্রয়াণ কিংবদন্তির 

sridevi and sanjay kapoor

প্রথমত, দেওর সঞ্জয় কাপুরের বিবৃতি জানাচ্ছে, শ্রীর মৃত্যু হয়েছে রাত এগারোটা থেকে সাড়ে এগারোটার মধ্যে। “হ্যাঁ, খবরটা সত্যি যে শ্রীদেবী আর নেই! আমি এই মাত্র দুবাই থেকে দেশে ফিরলাম, আর ফিরেই খবরটা পেলাম! এখন আবার দুবাইয়ের ফ্লাইট ধরছি। যত দূর শুনেছি, রাত এগারোটা থেকে সাড়ে এগারোটার মধ্যে ওঁর মৃত্যু হয়েছে। এর বেশি কিছু এখনও পর্যন্ত শুনিনি”, সংবাদমাধ্যমে খবরটার সত্যতা জ্ঞাপন করে এ কথা জানিয়েছেন সঞ্জয়।

মানে, যথেষ্টই সম্ভাবনা রয়েছে যে নায়িকার প্রয়াণের খবরটা বচ্চন আগে থেকেই জানতেন! ফলে টুইটারেতিরা এটাকে সম্ভাবনা বলে মেনে নিতে নারাজ। পরিণামে কেউ হাসাহাসি করছেন বর্ষীয়ান অভিনেতাকে নিয়ে, অনেকে আবার সরাসরি ভড়ং করার দাবিও তুলেছেন!

আরও পড়ুন : বনি কাপুরকে ক্ষমা করব না, শ্রীদেবীকে ঘৃণা করি: রাম গোপাল বর্মা

দ্বিতীয় যে খটকাটা জাগিয়েছে এই টুইটের সূত্রে, তা হল নায়িকার মৃত্যু কি স্বাভাবিক নয়? দুবাই পুলিশ যেহেতু প্রয়াত নায়িকার দেহের ময়নাতদন্ত করবে, সে জন্যই প্রশ্নটা উঠে আসছে। সেই প্রশ্নকে আরও বেশি সমর্থন করছে বচ্চনের এই টুইট!

অস্থিরতা কেন? ভয়-ই বা কেন? তা হলে কি তিনি জানতেন যে শ্রীদেবী আর প‌ৃথিবীতে থাকবেন না?

english vinglish

সে প্রশ্নের উত্তর মেলা যে সহজ নয়, তা কে না জানে!

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন