ওয়েবডেস্ক: আবির চট্টোপাধ্যায় এবং সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের মধ্যে যে একটা ঝগড়া-ঝগড়ির সম্পর্ক রয়েছে, সে কথা এত দিন ঘুণাক্ষরেও আঁচ করতে পারেনি টলিপাড়া। যদিও এ বার পেরেছে এবং তাও বিলক্ষণ ভাবেই। কেন না, সোশ্যাল মিডিয়ার রিপোর্ট এবং সব চেয়ে বড়ো কথা- নায়ক এবং পরিচালকের জবানবন্দি অন্তত সে কথাই জানাচ্ছে।

আসলে ২০১৪ সালে ‘জাতিস্মর’ এবং তার ঠিক পরের বছরে ‘রাজকাহিনি’ ছবির শুটিং করতে গিয়ে সৃজিতের যে উগ্রমূর্তি দেখেছিলেন আবির, এই ২০১৮ সালে ‘শাহজাহান রিজেন্সি’-তে কাজ করতে এসে দেখলেন, তা বেমালুম বিদায় নিয়েছে পরিচালকের চরিত্র থেকে। স্বাভাবিক, মাঝখানে বছর তিনেক কেটে গিয়েছে, এই সময়ের মধ্যে একটা পরিবর্তন তো আসাই স্বাভাবিক। “আমার মনে হয়েছে, সৃজিত এখন আগের চেয়ে অনেক শান্ত একজন মানুষ। এ বারে ওকে খুবই ইজি-গোয়িং ভাবমূর্তিতে আবিষ্কার করলাম। একজন লিডার হিসাবে ও এখন নিজেকে অনেক বেশি কন্ট্রোলের মধ্যে রাখে”, স্বীকার করে নিচ্ছেন আবির।

আরও পড়ুন: নারদ! নারদ! সৃজিত রিমেক বানান, বিরসার এই বক্তব্যেই কি শুরু হল দু’জনের সোশ্যাল মিডিয়ায় তরজা?

তবে, এই যে উচ্চ কণ্ঠে ঝগড়া করার ব্যাপারটা, সেটা যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস করেছেন সৃজিত নিজেই, সে কথাও স্বীকার না করলে অন্যায় হবে। আবিরের তরফ থেকে যে ছবির শুটিংয়ের কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে এবং তাঁর সঙ্গে কেমন ঝগড়া করতেন, তা নিজেই টুইট মারফত জানিয়েছেন পরিচালক। আবিরও উত্তরে জানিয়েছেন আবার- তিনি ভবিষ্যতে আরও ঝগড়ার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন! পড়ছেনই তো টুইটগুলো, কী মনে হচ্ছে বলুন তো?

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন