sushmita sen

ওয়েবডেস্ক:  বয়ফ্রেন্ড? জীবনে এমন কারও অস্তিত্বের কথা তো স্বীকার করেননি সুস্মিতা সেন। চলতি বছরের মার্চেই তো বুকে ঝড় তোলা একটি ছবি নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে পোস্ট করে জানিয়েছিলেন নায়িকা, এ আগুনের সঙ্গে খেলতে পারে, এমন কাউকে পাচ্ছি না বলেই তো বিয়ে করা হয়ে উঠছে না!

এ দিকে শুক্রবার চাউর হল জোর খবর – ফের সম্পর্ক ভাঙল তাঁর। সুস্মিতার এই মনের মানুষটির নাম ঋতিক ভাসিন। তিনি মুম্বইয়ের এক দুঁদে ব্যবসায়ী, অনেকগুলো রেস্তোরাঁর মালিক তিনি। এ হেন ভাসিনের প্রেমেই নিজেকে ভাসিয়েছিলেন তিনি। একটানা বছর চারেক তাঁর সঙ্গেই চলছিল নায়িকার প্রাণের খেলা। কথা ছিল বিয়েরও। মুম্বইয়ে একটি ফ্ল্যাটও কেনা হয়েছিল একত্র বাসের জন্য।

ritik bhasin

অবশ্য সেই খেলাঘর তাসের ঘরে বদলে যেতেও সময় লাগেনি। নায়িকার ঘনিষ্ঠরা জানাচ্ছেন, অনেক দিন থেকেই চলছিল তাঁদের মধ্যে অশান্তি। এক সময় তা তুঙ্গে ওঠায় আলাদা থাকতে শুরু করেন তাঁরা। এ সেই মার্চ মাসের কথা। তখনই ঝগড়া করে ইনস্টাগ্রামে বিয়ে নিয়ে ব্যঙ্গ করে পোস্টটি দেন তিনি। তার পর আর বেশি দিন লাগেনি। বছরের মাঝামাঝিই ভেঙে যায় তাঁদের সম্পর্ক।

তা হলে কেন এত দিন পরে চাউর হল সেই খবর?

নায়িকার কাছের বন্ধুরা জানিয়েছেন, এই কয়েক মাসে সুস্মিতার মন জয়ের কম চেষ্টা করেননি ভাসিন। কিন্তু মুখ ফিরিয়েই ছিলেন নায়িকা। অবশেষে তাঁর একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্ট দেখেই অবশেষে পাততাড়ি গোটালেন ভাসিন। এমন কী ছিল সেই পোস্টে?

সেখানে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন নায়িকা। সেই ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে একটা নানচাকু হাতে তাঁর শারীরিক কসরতের নানা বিভক্ত। কিন্তু তা মোটেও শান্ত নয়, বরং রীতিমতো উগ্র। সেই ভিডিওয় নায়িকাকে দেখলে ভয় করারই কথা। ঠিক যেন বলছেন তিনি- রণং দেহি! বিশ্বাস না হলে নিজেই দেখে নিন না উপরের ভিডিওয়!

তা হলে কি উগ্ররূপা প্রেমিকার তেজ সহ্য করতে না পারাটাই ব্রেক-আপের কারণ? সুস্মিতা বা ভাসিনের কেউই এ নিয়ে মুখ না খুললেও বলিউডের হাওয়ায় কিন্তু তেমন খবরই উড়ছে!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here