ওয়েবডেস্ক: মা বা বাবা- কারও টাকার অভাব নেই ভগবানের দয়ায়! বাবা নিজে যেমন ছবিতে উপার্জনের সূত্রে মোটা টাকা ঘরে আনেন, তেমনই রয়েছে পারিবারিক সূত্রে পাওয়া নবাবি সম্পদও! অন্য দিকে, মডেলিং, অভিনয় মিলিয়ে মায়ে উপার্জনটাও হেলাফেলা করার মতো নয়! তার উপর খুদেও হালফিলে মুখ দেখাতে শুরু করেছে পত্রিকার কভারে, শোনা যাচ্ছে ছবিতেও অভিনয় করবে সে। সে সব থেকেও কম কিছু টাকা আসেনি ঘরে! তার পরেও তৈমুর আলি খানকে কি না একেবারে সস্তার একটা স্কুলে ভর্তি করালেন করিনা কাপুর খান আর সইফ আলি খান?

অনেক দিনই হল, তৈমুরকে একটা জিম কাম মন্টেসরি স্কুলে ভর্তি করিয়েছেন সইফিনা। বাচ্চাদের বিশেষ ভাবে শরীরচর্চার মধ্যে যেমন রাখে এই স্কুল, তেমনই পাশাপাশি লেখাপড়াটাও শেখায়। এ নতুন কোনো খবর নয়। নতুন খবরটা হল স্কুলের পড়াশোনার খরচ। সম্প্রতি যা খবর এসেছে তার থেকে জানা গিয়েছে স্কুলের মাসিক বেতনের পরিমাণটা! আর সেটা জানাজানি হতেই সবার চোখ কপালে উঠেছে!

kareena kapoor khan and taimur ali khan

খবর বলছে, মুম্বইয়ের এই স্কুলের বাৎসরিক বেতন মাত্র ৪৭,০০০ টাকা। ৬ মাসের জন্য ভর্তি করালে দিতে হয় ২২,০০০ টাকা, তিন মাসের জন্য ১৫,০০০ টাকা। আর ১ মাসের জন্য মাত্র ৫,০০০ টাকা! মানে, তৈমুরের লেখাপড়ার পিছনে আপাতত সইফিনা বরাদ্দ করেছেন কেবল ৫,০০০ টাকা! যা বিস্ময়ের কারণ হয়েছে বইকি! চাইলেই ছেলেকে ঢের ভালো কোথাও ভর্তি করাতে পারতেন তাঁরা। কিন্তু করলেন না! তা হলে কি ছেলের শিক্ষা নিয়ে একেবারেই মাথাব্যথা নেই তাঁদের?

saif kareena taimur

যাই হোক, তৈমুর আপাতত কথা বলতে শিখেছে। জানা গিয়েছে আব্বা, গাম আর বেবি- এই তিনটে শব্দ উচ্চারণ করতে পারে সে। সইফকে বলে আব্বা, করিনাকে মম বলতে না পেরে গাম আর বেবিটা বোধ হয় শুনে শুনে শিখেছে! তা হলেই বুঝুন! এর পরেও যদি ছেলের সঠিক শিক্ষা নিয়ে সচেতন না হন সইফিনা, তা হলে আর কী বা বলার আছে!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here