ishita
ছবি ইনস্টাগ্রাম থেকে

মুম্বই : তনুশ্রী দত্তের #মিটু প্রতিবাদের পর বেশ কয়েক মাস কেটে গিয়েছে তার ওপর যৌন হেনস্থার মামলারও। এই বিষয়ে কথা বললেন তনুশ্রীর বোন ঈশিতা দত্ত। তিনি বলছেন, এই প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য তনুশ্রীকে ধন্যবাদ। কারণ তার পর থেকে মানুষ এই ধরনের সমস্যার বিষয়ে মুখ খুলছে। প্রতিবাদ করছে। এখন আর সবাই লজ্জায় ভয়ে গুটিয়ে থাকে না।

প্রসঙ্গত তনুশ্রী দাবি করেছিলেন, অভিনেতা নানা পটেকর তাঁকে যৌন হেনস্থা করেছিলেন। ঘটনাটি ঘটেছিল ২০০৮ সালে একটি ছবির সেটে। সেই ঘটনার বিচার তিনি এখনও পাননি।

ঈশিতা বলেন, মামলার ব্যাপারে তিনি বিস্তারিত বলতে পারবেন না। কিন্তু সেই দিনটির ব্যাপারে জানেন। পুলিশ ঠিক সময়ে এসে পৌঁছয়নি। ঘটনা খুব খারাপ দিকে গড়িয়েছিল। একটি ভিডিওর কথা বলেন ঈশিতা। বলেন, ২০০৮ সালে তনুশ্রীর গাড়ির ওপর হামলা করা হয়।

আরও পড়ুন – এই ছবিতে সলমন কি ঐশ্বর্যকে ক্রপ করে দিয়েছে! কেন? দেখুন তো

ঈশিতা খুবই গর্বিত। তাঁর দিদি প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরী, নিজের সঙ্গে ঘটা ঘটনা সকলের সামনে এনেছেন। প্রতিবাদ করেছেন আর পাশাপাশি অন্যদেরও সাহস জুগিয়েছেন। এখন সংবাদমাধ্যমের সাহায্যে সবটাই মানুষের সামনে। একটা সময়ে মানুষ বুঝতে পারত না কী করা উচিত? এখন আশা করা যায়, মহিলারা নিজেদের দায়িত্ব নিজেরাই পালন করে। এই সমস্যার সম্মুখীন হলে প্রতিবাদ করে, সোচ্চার হয়ে ওঠে।

ঈশিতা বলেন, এই ধরনের অন্দোলন এক জনের দ্বারা করা সম্ভব নয়। আবার শুধু মহিলাদের দ্বারাও করা সম্ভব নয়। বহু অভিনেতাও এই বিষয়ে সমর্থন জানিয়েছেন। এগিয়ে এসেছেন। তাঁরাও এটি গুরুতর সমস্যা বলে মেনে নিয়েছেন। এই বিষয়ে এখন মানুষ কথা শুনতে প্রস্তুত। এই সব পরিবর্তনগুলি এসেছে।

২০০৮-এর এই ঘটনাটি তাঁকে সিনেমায় আসার ব্যাপারে নিরুৎসাহ করেনি, বলেন ঈশিতা। তাঁর সিনেমায় কাজ করার পেছনে অন্যতম কারণ তনুশ্রী।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here