ওয়েবডেস্ক: তাঁরা দাবি করে থাকেন ব্যাপারটা আর কিছুই নয়, স্রেফ পেশাদারিত্ব! পাশাপাশি, কিছুটা আবার অভ্যাসও বটে! সেই জন্যই যখন এক সঙ্গে পর্দায় দেখা দেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত আর প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, তা কিংবদন্তি মুহূর্ত হয়ে থেকে যায় বাংলা ছবির জগতে। তা সে নন্দিতা রায়, শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের ‘প্রাক্তন’-ই হোক বা কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘দৃষ্টিকোণ’! সত্যি বলতে কী, এই রসায়নের জন্যই এখনও ঋতুপর্ণা আর প্রসেনজিৎকে এক ছবিতে কাস্ট করার জন্য মুখিয়ে থাকেন পরিচালক আর প্রযোজকরা!

rituparna sengupta and prosenjit chatterjee

কিন্তু ব্যাপারটা যে শুধুই পেশাদারিত্ব এবং অভ্যাস নয়, বরং আরও কিছু, সে রহস্য সম্প্রতি ফাঁস করে দিলেন চূর্ণি গঙ্গোপাধ্যায়। কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘দৃষ্টিকোণ’ ছবিতে অভিনয়ের সুযোগে তিনি খুব কাছ থেকেই দেখেছেন বাংলা ছবির এই কিংবদন্তি জুটিকে। তার ভিত্তিতেই দাবি করছেন চূর্ণি- ঋতুপর্ণা আর প্রসেনজিতের প্রেমের যে গল্প সংবাদমাধ্যম এবং ভক্তের মুখে মুখে ফেরে, তা মিথ্যা নয়! শুধু তাই নয়, সেই প্রেম এখনও ফুরিয়ে যায়নি!

churni ganguly

তা, প্রেম যে ফুরিয়ে যায়নি, সে কিছু নতুন কথা নয়। অভিমানের জায়গা থেকেই প্রায় বছর কুড়ি একসঙ্গে এক ছবিতে কাজ করেননি ঋতুপর্ণা আর প্রসেনজিৎ। এতটা অভিমান কোনো সম্পর্কের ভিত্তি না থাকলে তো গড়ে ওঠে না! সব চেয়ে বড়ো কথা, সেই ভালোবাসা এখনও ফুরিয়ে যায়নি বলেই ফের এক হওয়ার পর ঘন ঘন নানা অনুষ্ঠানে একসঙ্গে দেখা দিচ্ছেন তাঁরা! যা নিছক ছবির স্বার্থে নয়!

rituparna sengupta and prosenjit chatterjee

তা, চূর্ণি কী দেখেছেন তাঁদের সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে? ঠিক কী জানাচ্ছেন তিনি?

churni ganguly

এই জায়গায় এসে কিন্তু একটু হলেও হতাশ হতে হবে! খুব বুদ্ধিমতীর মতো চূর্ণি বিশদে ঋতুপর্ণা এবং প্রসেনজিতের অফুরান প্রেমকে চর্চার বিষয় করে তুলতে চাননি। স্রেফ ইঙ্গিতটুকু দিয়েই ক্ষান্ত থেকেছেন তিনি। “ঋতুপর্ণা আর প্রসেনজিতের প্রেম এখনও ফুরোয়নি! সেই জন্যেই তাকে পর্দায় এমন সুন্দর করে তুলে ধরা সম্ভব হয়েছে”, দাবি তাঁর!

কী মনে হয়, এর বেশি বলার সত্যিই প্রয়োজন আছে?

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here