‘এ ভাবে ঘৃণা বিরাজ করতে পারে না’, দিল্লি হিংসায় উদ্বেগ প্রসেনজিতের

0
prosenjit
অভিনেতা প্রসেনিজৎ। ছবি সৌজন্যে দ্য হিন্দুস্তান টাইমস।

কলকাতা: দিল্লির ধারাবাহিক হিংসার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বাংলা চলচ্চিত্রের অভিনেতারা অবিলম্বে শান্তি সম্প্রীতি ফিরিয়ে নিয়ে আসার দাবিতে সরব হলেন। গত শনিবার থেকে উত্তর-পূর্ব দিল্লির বিভিন্ন জায়গায় সংঘটিত সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষের জেরে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৩৮ জনের।

টলিউড তারকা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের উদ্বেগ প্রকাশের পাশাপাশি শান্তি ফিরিয়ে নিয়ে আসার আর্জি জানিয়েছেন। লিখেছেন, “আমাদের দেশের রাজধানীতে এ ধরনের বিশৃঙ্খলার খবর শুনে দুঃখিত ও বিধ্বস্ত। এ ভাবে ঘৃণা বিরাজ করতে পারে না, আসুন ঐক্যবদ্ধ ভাবে ভারতীয় হয়ে এগিয়ে চলি”।

টলিউড অভিনেত্রী এবং তৃণমূল সাংসদ নুসরত টুইটারে লিখেছেন, “আমি দু:খিত, হতাশ… আমার দেশ জ্বলছে। ভুলে যাবেন না আমরা প্রথমে মানুষ। এ ছাড়াও দয়া করে গুজব, ভুয়ো খবর এবং ঘৃণা ছড়িয়ে দেবেন না”।

বাংলা ছবির অভিনেতা এবং তৃণমূল সাংসদ দেব নিজের টুইটার হ্যান্ডলে একটি ত্রিবর্ণ জাতীয় পতাকার ছবি পোস্ট করেছেন। লিখেছেন, “আমি দেখতে পাচ্ছি না দিল্লি জ্বলছে, আমি দেখতে পাচ্ছি জ্বলছে মানবতা। এটা ঈশ্বরের পরিকল্পনা ছিল না, তাই শীঘ্রই এটা বন্ধ হওয়া প্রয়োজন। নয়তো দেশ হিসেবে আমরা প্রত্যেকেই ব্যর্থ হব”।

নিজের ছবির শুটিংয়ে ব্যস্ত রয়েছেন অভিনেতা-সাংসদ। তিনি জানিয়েছেন, “দিল্লির ধারাবাহিক হিংসার ঘটনা আমাকে গভীর ভাবে আঘাত দিয়েছে। শান্তি ফিরে আসুক, মানবিকতা বিরাজ করুক”।

অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের কথায়, এই ঘটনায় তিনি মোটেই হতবাক নন। এই ধরনের কার্যকলাপ দীর্ঘদিন ধরেই চলছিল, সেটাই এখন প্রকাশ্যে এসেছে। তিনি লিখেছেন, “আমাদের দেশের এই করুণ পরিস্থিতিতে কেমন যেন একটা নিজেদেরই অসহায় অবস্থার প্রতিফলন দেখতে পাচ্ছি”।

দিল্লি হিংসার সমস্ত খবর পড়ুন এখানে ক্লিক করে

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.