কলকাতা: শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন বর্ষীয়ান অভিনেতা প্রদীপ মুখোপাধ্যায় (Pradip Mukherjee)। গত কয়েক দিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। রবিবার তাঁকে ভেন্টিলেশনে দেওয়া হয়। সোমবার সকাল ৮টা ১৫ মিনিট নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সত্যজিৎ রায়ের ‘জন অরণ্য’-এর (Jana Aranya) সোমনাথ।

কিছুদিন আগেও পরিচালক নির্মল চক্রবর্তীর ছবিতে কাজ করছিলেন তিনি। ছবির নাম ‘দত্তা’। শ্যুটিং শেষও করেছিলেন কিন্তু বাকি থেকে গেছে ডাবিং পর্ব। এরই মধ্যে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন প্রদীপ। জানা গিয়েছে, ফুসফুসে সংক্রমণ নিয়ে নাগেরবাজারের দমদম ক্যান্টনমেন্ট মিউনিসিপ্যাল হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।

সাতের দশকে বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে হাতেখড়ি হয় অভিনেতার। ১৯৭৬ সালে সত্যজিৎ রায়ের হাত ধরে ‘জন অরণ্য’ ছবিতে তাঁর অভিনয় আজও দর্শককে মুগ্ধ করে। এ ছাড়া ‘অশ্লীলতার দায়ে’, ‘সতী’, ‘পুরুষোত্তম’-এর মতো ছবি উপহার দিয়েছেন তিনি। এ ছাড়াও কাজ করেছেন ‘গোলাপ বউ’, ‘দৌড়’, ‘দুরাত্মা’, ‘দূরের নদী’, ‘ললিতা’, ‘অন্বেষণ’-সহ অনেক ছবিতে। ‘হীরের আংটি’, ‘শাখা প্রশাখা’, ‘দহন’-এর মতো ছবিতে কাজ করেছেন।

গত বছর পর্যন্ত একাধিক আধুনিক ছবিতে কাজ করে গেছেন তিনি। ‘উৎসব’, ‘যেখানে ভূতের ভয়’, ‘মাছ, মিষ্টি অ্যান্ড মোর’, ‘গয়নার বাক্স’, ‘বাদশাহী আংটি’. ‘সজারুর কাঁটা’, ‘কহানি ২’ (হিন্দি), ‘তরুলতার ভূত’-সহ বিভিন্ন ছবিতে তাঁর অনবদ্য অভিনয় দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, প্রদীপের দুই সন্তান। ছেলে এবং মেয়ে দু’জনেই থাকেন দুবাইয়ে। মেয়ে রবিবার সকালে কলকাতায় এসেছেন। বিকেলের মধ্যে কলকাতায় পৌঁছানোর কথা ছেলের। অভিনেতার প্রয়াণে শোকের ছায়া নেমে এসেছে টলিউডে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন