'লগান' ছবিতে আমির খান। 'রাজি' ছবিতে আলিয়া ভাট।

আর দিন পাঁচেক পরেই ভারতের ৭২তম সাধারণতন্ত্র দিবস। এ বছরেই পূর্ণ হচ্ছে ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর। এ দিকে বছর দুয়েক ধরে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো ভারতও করোনা অতিমারিতে আক্রান্ত। এখন চলছে কোভিডের তৃতীয় ঢেউ। এই পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে এ বছর পালিত হচ্ছে সাধারণতন্ত্র দিবস।

সাধারণতন্ত্র দিবস দেশবাসীর কাছে একটা ছুটির দিন। এই দিনটাতে ঘরে বসে অন্য ধরনের সিনেমা দেখে সময় কাটাতে পারেন।

এমন কিছু ছবি দেখতে পারেন যেখানে ঔপনিবেশিকতা, সাম্প্রদায়িকতা, জাতপাত, লিঙ্গবৈষম্যের বিরুদ্ধে বার্তা দেওয়া হয়েছে, যেখানে জাতীয়তাবাদ ও উন্নয়নের জয়গান গাওয়া হয়েছে। সে রকমই পাঁচটি হিন্দি ফিল্মের কথা বলা হল এখানে –

লগান

কাল্পনিক কাহিনি ‘লগান’-এর সময়কাল ব্রিটিশ শাসনকাল। জমির খাজনা আদায়ের নামে অকথ্য অত্যাচার চলে গ্রামের পিছিয়ে থাকা নিপীড়িত ‘সাবঅল্টার্ন’ মানুষগুলোর উপর। ফসল না ফললেও খাজনা ছাড় দেওয়া হয় না। সেই খাজনা মকুবের শর্ত হিসাবে এল অদ্ভুত প্রস্তাব। ক্রিকেট ম্যাচে জয়-পরাজয়ই নির্ধারণ করবে খাজনা দিতে হবে কি না। চাষি পরিবারের যুবক ভুবনের নেতৃত্বে গ্রামবাসীরা সেই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করল। কোনো রকম প্রশিক্ষণ ছাড়াই তারা নেমে পড়ল মাঠে। দেখুন কী ভাবে ভুবনের দল বিটিশ ক্যাপ্টেন অ্যান্ড্রু রাসেলের নেতৃত্বাধীন টিমকে হারিয়ে বিদেশি সাহেবদের মুখ পোড়াল। আশুতোষ গোওয়ারিকরের ছবি ‘লগান’ আপনাকে উজ্জীবিত করবেই।

রঙ দে বাসন্তী

রাকেশ ওম প্রকাশ মেহরা পরিচালিত ছবি ‘রঙ দে বাসন্তী’। এক দল কলেজপড়ুয়ার গল্প। ব্রিটিশরাজে কর্নেল ঠাকুরদার ডায়েরি পড়ে ফিল্ম স্টাডিজ পাঠরত ব্রিটিশ ছাত্রী সুয়ে ম্যাকিনলে ভারতে আসে পাঁচ স্বাধীনতা সংগ্রামীকে নিয়ে ছবি করতে – চন্দ্রশেখর আজাদ, ভগৎ সিং, শিবরাম রাজগুরু, আসফাকুল্লা খান এবং রাম প্রসাদ বিসমিল। সুয়ে তার বন্ধু দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী সোনিয়ার সাহায্যে তার পাঁচ বন্ধুকে ওই ছবিতে অভিনয় করাতে রাজি করায়। ওই কলেজপড়ুয়াদের ভবিষ্যৎ নিয়ে কোনো চিন্তাভাবনা ছিল না। দেশাত্মবোধে তাঁদের কোনো আগ্রহও ছিল না। একটা ঘটনার পর এই ছেলেরাই কী ভাবে আমূল পালটে গেল, কী ভাবে প্রতিবাদের পথ ধরল তারই গল্প ‘রঙ দে বাসন্তী’। সেই ঘটনাটা হল সনিয়ার প্রেমিক ভারতীয় বিমানবাহিনীর ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট অজয় সিং রাঠোরের মিগ দুর্ঘটনায় মৃত্যু। নিজের গাফিলতিতেই মৃত্যু হয়েছে রাঠোরের, এই কথা বলে দুর্ঘটনা নিয়ে তদন্ত বন্ধ করে দিল সরকার। সরকারের এই আচরণই সংগ্রামী করে দিল পাঁচ বন্ধুকে।

রাজি

আলিয়া ভাট ও ভিকি কৌশল অভিনীত এবং মেঘনা গুলজার পরিচালিত ২০১৮-য় মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘রাজি’। তথাকথিত ‘শত্রু রাষ্ট্র’-এর মানুষদের এই ছবি অমানবিক আখ্যা দেয় না। প্রকৃত জাতীয়তাবাদের জন্য লড়াই করতে কী ভাবে সাধারণ মানুষকে সংগ্রাম করতে হয়, তা দেখানো হয়েছে এই ফিল্মে।

চক দে ইন্ডিয়া

শাহরুখ খান অভিনীত ‘চক দে ইন্ডিয়া’ মুক্তি পেয়েছিল ২০০৭ সালে। দেশাত্মবোধ, সাম্প্রদায়িকতা ও যৌনতাবাদ নিয়ে বলা হয়েছে এই ফিল্মে। পাকিস্তানের সঙ্গে ম্যাচ-ফিক্সিং-এর করার অভিযোগে দায়ী করা হল কবীর খানকে (ফিল্মে শাহরুখ খান)। তাঁর বিরুদ্ধে বলা হল, তিনি নাকি দেশের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন। তবে তিনি ভারতের জাতীয় মহিলা হকি দলকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজ পেলেন। পুরুষ হকি দলের সঙ্গে তুলনা করলে বলা যায় এই মহিলা দলের প্রতি তৃতীয় শ্রেণির আচরণ করা হত। সেই মহিলা হকি দলকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিজয়ী করলেন তথাকথিত ‘বিশ্বাসঘাতক’ কবীর খান।

আর্টিকল ১৫

অভিনব সিনহা পরিচালিত এবং আয়ুষ্মান খুরানা অভিনীত ‘আর্টিকল ১৫’ শহরে বড়ো হওয়া এক ঋজু পুলিশ অফিসারের কাহিনি। গ্রামে তার পোস্টিং হয়। দেশ স্বাধীনতা অর্জনের এতগুলো বছর পরেও সমাজে জাতপাতের বৈষম্য প্রত্যক্ষ করে সে ব্যথিত হয়। আজও কী ভাবে দলিতদের উপর নিপীড়ন করা হয় তা দেখে সে বিস্মিত হয়, প্রতিবাদী হয়ে ওঠে।

আরও পড়তে পারেন

এ বছরেও সাধারণতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে কোনো বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধান আসছেন না

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন