যখন বিতর্কিত রিপোর্টে দাবি করা হয়েছিল মিঠুন চক্রবর্তীর এডস ধরা পড়েছে

0
mithun chakraborty

ওয়েবডেস্ক: নয়ের দশকে চলচ্চিত্র তারকাদের নিয়ে ম্যাগাজিনের প্রতিবেদনগুলি চরম বিতর্কিত পর্যায়ে পৌঁছে যেত। অন্য অনেকের মতো মিঠুন চক্রবর্তীও এক সময় এ রকম এক চরম ক্ষোভজনক সংবাদের শিকার হয়েছিলেন।

একটি পত্রিকা একবার জানিয়েছিল, মিথুন এডস রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। একটি পুরানো সাক্ষাৎকারে অভিনেতা নিজেই বলেছিলেন, একটি ম্যাগাজিনের প্রতিবেদক একবার লিখেছিলেন মিঠুন এডস আক্রান্ত হয়েছিলেন।

ওই প্রতিবেদনে প্রবীণ অভিনেতা অত্যন্ত বিস্মিত হয়েছিলেন এবং সাক্ষাৎকারের সময় নিজের বিরক্তি প্রকাশ করেছিলেন।

যে ভাবে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছিলেন মিঠুন

“প্রথমে তারা এটি প্রকাশ করে, এবং তার পরে এ সম্পর্কে কী বলতে হবে, তা জানতে আমাদের কাছে আসে। আমি কী বলব? আপনি লিখেছেন, আমি এডস আক্রান্ত হয়েছি। আমি কাকে বলব? কী ভাবে প্রমাণ করব? আমার যে এডস নেই, তা প্রমাণ করার জন্য তা হলে তো এখনই আমাকে দৌড়াতে হবে। ১০০ জনের মধ্যে একজন যদি এই সংবাদটিতে বিশ্বাস করে, তবে আমার সামাজিক অবস্থানটা কী হবে? এই জাতীয় সাংবাদিকতার কারণে আমাদের আজকের এই অবস্থা। বাড়িঘর পেতে অসুবিধা হয়, তাদের শিশুরা স্কুলে ভর্তি হতে অসুবিধার মুখোমুখি হয়”, এক সাক্ষাৎকারের সময় বলেছিলেন ক্ষুব্ধ মিঠুন।

কড়া পদক্ষেপ

মিঠুন আরও বলেছিলেন, সিনে আর্টিস্টস অ্যাসোসিয়েশন এর পরে এমন ছয়টি ম্যাগাজিনকে সহযোগিতা না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, যেগুলো এই জাতীয় বিতর্কিত ভুয়ো রিপোর্ট তৈরির জন্য পরিচিত ছিল। ঠিক আছে, এই জাতীয় জালিয়াতি এবং মানহানিকর প্রতিবেদনগুলি সত্যিই চমকে দেওয়ার মতো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.